মুজিবের মামলা সিআইডিতে

প্রকাশ: ২৬ আগস্ট ২০১৪      

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি

যুক্তরাজ্য বিএনপির সহসভাপতি মুজিবুর রহমান মুজিব ও তার গাড়িচালক রেজাউল হক সোহেলের মামলা সিআইডি পুলিশে স্থানান্তর হয়েছে। গতকাল সোমবার সন্ধ্যায় সিআইডির ইন্সপেক্টর সুরঞ্জিত তালুকদার মামলা বুঝে নেন।
পুলিশ সুপার হারুন অর রশিদ বলেন, 'মুজিব পুলিশের নজরদারিতে সুনামগঞ্জ শহরের হাজীপাড়ার বাসায় রয়েছেন। চালক সোহেল পুলিশের হেফাজতে আছেন। মামলাটি আজ (গতকাল) সিআইডিতে স্থানান্তর হবে। পরে সিআইডির তত্ত্বাবধানে মুজিব ও চালক সোহেল আদালতে জবানবন্দি দেবেন।'
সিআইডির ইন্সপেক্টর সুরঞ্জিত তালুকদার বলেন, 'অফিসিয়ালি মামলাটি সিআইডিতে স্থানান্তরের সিদ্ধান্ত হয়েছে। আমাকে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। মামলার বর্তমান তদন্তকারী কর্মকর্তা সদর থানার ওসি (তদন্ত) আবদুল হাইয়ের কাছ থেকে রাতেই সবকিছু বুঝে নেব আমি।'
গত ৪ মে বিকেল ৪টায় সুনামগঞ্জ কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে গুম-খুনের প্রতিবাদে দলীয় অনশন কর্মসূচি থেকে ফেরার পথে সুনামগঞ্জ-সিলেট সড়কের টুকেরবাজার এলাকা থেকে মুজিব ও তার চালককে অপহরণ করা হয়। নিখোঁজের সাড়ে তিন মাস পর গত সোমবার সকালে গাজীপুরের টঙ্গীর অদূরে বোরকা পরিয়ে ও মুখে স্কচটেপ দিয়ে মুখ বন্ধ করে মুজিবকে রেখে যাওয়া হয়। একইভাবে তার গাড়িচালক সোহেলকেও রেখে যাওয়া হয়। পরে একটি সিএনজিতে করে সোমবার দুপুরে গুলশান-১-এর ১২৬ নম্বর সড়কের ১৮ নম্বরে শ্যালক ব্যারিস্টার আনোয়ারের বাসায় আসেন মুজিব। এর পর থেকে গত বুধবার সকাল পর্যন্ত নিখোঁজ ছিলেন চালক রেজাউল হক সোহেল। বুধবার রাতে পুলিশ পাহারায় মুজিব ও তার চালক রেজাউল হক সোহেলকে সুনামগঞ্জে নিয়ে আসা হয়। এর পর থেকে মুজিবকে সিলেটে ও তার চালককে নিয়ে সিলেট, ঢাকা ও গাজীপুরের বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালায় পুলিশ।
সোমবার বিকেল পর্যন্ত মুজিব পুলিশ পাহারায় সুনামগঞ্জ শহরের হাজীপাড়ার বাসায় ও চালক সোহেল সদর থানা পুলিশের হেফাজতে ছিলেন।