ফুলবাড়ী ট্র্যাজেডি দিবস আজ

প্রকাশ: ২৬ আগস্ট ২০১৪      

দিনাজপুর ও ফুলবাড়ী প্রতিনিধি

আজ ২৬ আগস্ট, ফুলবাড়ী ট্র্যাজেডি দিবস। ২০০৬ সালের এই দিনে উন্মুক্ত পদ্ধতিতে খনি থেকে কয়লা উত্তোলন প্রকল্প বাতিল, জাতীয় সম্পদ রক্ষা এবং বিদেশি কোম্পানি এশিয়া এনার্জিকে ফুলবাড়ী থেকে প্রত্যাহারের দাবিতে বিক্ষোভে ফেটে পড়ে ফুলবাড়ীর মানুষ। বিক্ষুব্ধ জনতার ওপর পুলিশ ও বিডিআর গুলিবর্ষণ করলে ঘটনাস্থলেই প্রাণ হারান তিনজন, আহত হন দুই শতাধিক। ৮ বছর পেরিয়ে গেলেও বাস্তবায়ন হয়নি ফুলবাড়ীবাসীর সঙ্গে সরকারের ৬ দফা চুক্তি। এদিকে 'ফুলবাড়ীতে উন্মুক্ত পদ্ধতিতে কয়লা খনি হবে' জ্বালানি মন্ত্রণালয়ের এমন বক্তব্যে ফুঁসছে ফুলবাড়ীবাসী।
উন্মুক্ত পদ্ধতির কয়লা খনি প্রকল্প বাতিলসহ বিভিন্ন দাবিতে ২০০৬ সালের ২৬ আগস্ট সকাল থেকেই ফুলবাড়ীর ঢাকা মোড়ে ফুলবাড়ী, বিরামপুর, নবাবগঞ্জ ও পার্বতীপুর উপজেলার হাজার হাজার মানুষ জমায়েত হতে থাকে। দুপুর ২টার দিকে তেল গ্যাস খনিজসম্পদ ও বিদ্যুৎ বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটি ও ফুলবাড়ী রক্ষা কমিটির নেতৃত্বে বিশাল প্রতিবাদ মিছিল নিমতলা মোড়ের দিকে আসতে থাকলে প্রথমে পুলিশ বাধা দেয়। পুলিশ-বিডিআরের (বর্তমানে বিজিবি) বাধা উপেক্ষা করে মিছিলটি এগোতে থাকলে আন্দোলনকারীদের ওপর টিয়ারগ্যাসের শেল, রাবার বুলেট ও গুলিবর্ষণ করা হয়। গুলিতে এ সময় নিহত হন আল আমিন, সালেকীন ও তরিকুল। আহতদের মধ্যে অনেকেই পঙ্গুত্ববরণ করেছেন। ওই দিনই ফুলবাড়ীতে এশিয়া এনার্জির অফিস ভাংচুর করে বিক্ষুব্ধরা। পাশাপাশি শুরু করে লাগাতার হরতাল। ৩০ আগস্ট তৎকালীন বিএনপি-জামায়াত জোট সরকার ফুলবাড়ীবাসীর সঙ্গে ৬ দফা চুক্তি করলে ধীরে ধীরে অবস্থা স্বাভাবিক হয়। চুক্তির শর্তগুলোর মধ্যে ছিল_ এশিয়া এনার্জিকে দেশ থেকে বহিষ্কার, দেশের কোথাও উন্মুক্ত পদ্ধতিতে কয়লা উত্তোলন করা যাবে না। সম্প্রতি জ্বালানি মন্ত্রণালয় থেকে বলা হয়েছে, ফুলবাড়ীতে উন্মুক্ত পদ্ধতিতে কয়লা খনি হবে এবং তার পুরো প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। এমন বক্তব্যে আবারও ফুঁসছে ফুলবাড়ীবাসী।
তেল গ্যাস খনিজসম্পদ রক্ষা জাতীয় কমিটির ফুলবাড়ী শাখার আহ্বায়ক সাইফুল ইসলাম জুয়েল জানান, ফুলবাড়ীর কয়লা সম্পদ নিয়ে যে কোনো চক্রান্ত হোক না কেন, তা এলাকার মানুষ রুখে দেবে। তেল গ্যাস খনিজসম্পদ ও বিদ্যুৎ বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটি আজকের দিনটিকে 'জাতীয় সম্পদ রক্ষা দিবস' হিসেবে এবং সম্মিলিত পেশাজীবী সংগঠন ও ফুলবাড়ীবাসীর পক্ষ থেকে 'ফুলবাড়ী শোক দিবস' পালন উপলক্ষে বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে।