জ্যৈষ্ঠের ঝড়ে মঞ্চ তছনছ। সেই মঞ্চে দাঁড়িয়েই নজরুল সম্মাননা গ্রহণ করলেন নজরুল সঙ্গীতচর্চার কিংবদন্তি ওস্তাদ জুলহাস উদ্দিন আহমেদ। ১১৭তম নজরুলজয়ন্তী উপলক্ষে গতকাল বুধবার এবি ব্যাংক-চ্যানেল আই নজরুল মেলায় ৮৫ বছর বয়সী দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী এই ওস্তাদকে সম্মানিত করা হয়।
তার হাতে সম্মাননার অর্থমূল্যের চেক ও স্মারক তুলে দেন চ্যানেল আইয়ের পরিচালক ও বার্তাপ্রধান শাইখ সিরাজ এবং পরিচালনা পর্ষদের সদস্য জহির উদ্দিন মাহমুদ মামুন। উত্তরীয় পরিয়ে দেন মুকিত মজুমদার বাবু। এ সময় মেলার পৃষ্ঠপোষক এবি ব্যাংকের এক্সিকিউটিভ ভাইস প্রেসিডেন্ট (হেড অব কনজিউমার ব্যাংকিং) সৈয়দ মিজানুর রহমান উপস্থিত ছিলেন। সম্মাননার প্রতিক্রিয়ায় জুলহাস উদ্দিন আহমেদ বলেন 'নজরুলের ৩০ ধরনের গান রয়েছে। আমাদের দুখু মিয়া অনেক দুঃখকষ্টে জীবনযাপন করেছেন। আমাদের জন্য রেখে গেছেন তার অফুরন্ত গান আর গল্প-কবিতার সম্ভার। তাই তো কবি আমাদের মাঝে চির উন্নত মমশির।'
এর আগে বৃষ্টি মাথায় তেজগাঁওয়ের চ্যানেল আই কার্যালয়ের
প্রাঙ্গণে এক ঝাঁক বর্ণিল বেলুন আকাশে উড়িয়ে মেলার উদ্বোধন হয়। এ সময় নাট্যজন আতাউর রহমান, কবি কাজী রোজী, চিত্রশিল্পী হাশেম খান, শিশু সাহিত্যিক আলী ইমাম, গণমাধ্যম ব্যক্তিত্ব মুহাম্মদ জাহাঙ্গীর, আনন্দ আলো সম্পাদক রেজানুর রহমান, চলচ্চিত্র গবেষক অনুপম হায়াৎ, চলচ্চিত্র পরিচালক মতিন রহমানসহ সঙ্গীতশিল্পী, গবেষক ও শুভানুধ্যায়ীরা উপস্থিত ছিলেন।
চ্যানেল আই ভবনের স্টুডিওতে নজরুলে গান পরিবেশন করেন শাহিন সামাদ, খালিদ হোসেন, রাহাত আরা গীতি, রওনক আরা সোমা, শহীদ কবির পলাশ প্রমুখ। দলীয় পরিবেশনায় অংশ নেয় সুরসপ্তক ও ব্র্যাক দ্বীপশিখার শিল্পীরা। নজরুলের ভাবসম্পদ থেকে ছবি আঁকে খ্যাতিমান শিল্পীদের পাশাপাশি একদল শিশু। এই শিশুশিল্পীদের মধ্যে সনদ বিতরণ করেন শাইখ সিরাজ ও চিত্রশিল্পী আবদুল মান্নানসহ অতিথিরা। ২০টি স্টলে নজরুলের স্মৃতিধন্য নানা জিনিসপত্র প্রদর্শন করা হয়।

মন্তব্য করুন