ডিএমপির সভা

জঙ্গিদের প্রতি আরও কঠোর হতে পুলিশকে নির্দেশ

প্রকাশ: ১২ জুন ২০১৬      

সমকাল প্রতিবেদক

উগ্রপন্থিদের কোনো ছাড় না দিতে মাঠ পর্যায়ের পুলিশ সদস্যদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। তাদের ব্যাপারে জিরো টলারেন্স নীতি গ্রহণ করা হবে। সন্দেহভাজন ব্যক্তিদের সম্পর্কে তথ্য নিতে পুলিশ সাদা পোশাকে বিভিন্ন পাড়া-মহল্লায় দায়িত্ব পালন করবে। ভাড়াটিয়াদের তথ্য সংগ্রহের ওপর আরও জোর দেওয়া হবে। চলমান জঙ্গিবিরোধী অভিযানে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাদের (ওসি) সক্রিয় হওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।
গতকাল শনিবার ডিএমপি সদর দপ্তরে মাসিক অপরাধ সভায় এসব নির্দেশনা দেওয়া হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন ডিএমপি কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া। বৈঠকে সব অপরাধ বিভাগের ডিসি, ডিবির কর্মকর্তা ও ৪৯ থানার ওসিরা উপস্থিত ছিলেন।
সভায় উপস্থিত একাধিক কর্মকর্তা সমকালকে জানান, উগ্রপন্থিদের প্রতি কঠোর মনোভাব দেখাতে বলা হয়েছে। তাদের বিন্দুমাত্র ছাড় দেওয়া হবে না। মাদ্রাসার ওপর নজরদারি বাড়ানো হবে। 'মানুষ হত্যা করলে কোনো ছাড় নয়'_ জঙ্গিদের এমন কঠোর বার্তা দিতে
হবে। জামিনপ্রাপ্ত উগ্রপন্থিদের হালনাগাদ তালিকা তৈরি করা হবে। এ ছাড়া কারাগারে জঙ্গিদের সঙ্গে কারা দেখা করতে যাচ্ছে, তাদের ব্যাপারেও খোঁজখবর নেওয়া হবে। জঙ্গিবিরোধী অভিযান চলাকালে সাধারণ মানুষ যাতে হয়রানির শিকার না হন, সে ব্যাপারে সতর্ক থাকতে বলা হয়েছে।
সভায় বলা হয়, রোজা ও ঈদকে কেন্দ্র করে রাজধানীর আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে আরও সক্রিয়ভাবে দায়িত্ব পালন করতে হবে। ঈদের সময় কারও কাছ থেকে অর্থ আদায়ের অভিযোগ যেন না আসে, সে ব্যাপারে সভায় সবাইকে সতর্ক করা হয়েছে। রমজানে যানজট নিরসনে পুলিশের ট্রাফিক বিভাগকে আরও তৎপর হওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। সন্ধ্যায় রাজধানীর অনেক গুরুত্বপূর্ণ সড়কে ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা ঢিলেঢালা হয়ে পড়ে; এতে ঘরফেরত সাধারণ মানুষ ভোগান্তিতে পড়েন। সন্ধ্যায় সব সড়কে ট্রাফিক পুলিশের উপস্থিতি নিশ্চিত করতে এবং রমজানে ছিনতাই ঠেকাতে সব থানা পুলিশকে বিশেষ টিম তৈরির নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। ঈদ উপলক্ষে প্রতিটি বিপণিবিতানে মোতায়েন থাকবে পুুলিশের পৃথক ফোর্স।