শেবাচিমে শিক্ষানবিশ চিকিৎসকদের ধর্মঘট

প্রকাশ: ১২ জুন ২০১৬      

বরিশাল ব্যুরো

একজন নারী শিক্ষানবিশ চিকিৎসককে লাঞ্ছিত করার অভিযোগে গতকাল শনিবার দুপুর থেকে ধর্মঘট পালন করছেন বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ (শেবাচিম) হাসপাতালের শিক্ষানবিশ চিকিৎসকরা। অভিযুক্ত ব্যক্তিকে গ্রেফতার না করা পর্যন্ত ওই ধর্মঘট চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন তারা। এদিকে আকস্মিক ধর্মঘটের কারণে হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে আসা রোগীরা গতকাল চরম দুর্ভোগে পড়েন।
রোগীর সঙ্গে আসা জহুরুল নামের একজন বলেন, দুপুর ১২টার দিকে হাসপাতালে এসে ধর্মঘটের কথা শুনতে পাই। এখন রোগীকে কোথায় নিয়ে গেলে ভালো চিকিৎসা পাব, তা নিয়ে খুব চিন্তায় আছি।
শেবাচিম শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি ও শিক্ষানবিশ চিকিৎসক ডা. ইমরান হোসেন অভিযোগ করেন, হাসপাতালের মেডিসিন ইউনিট-১ এ হরেন বিশ্বাস নামে এক রোগী ভর্তি রয়েছেন। রোগীর নিকটাত্মীয় পটুয়াখালীর মীর্জাগঞ্জ থানার উপপরিদর্শক মনোজ কুমার সরকার শুক্রবার দুপুরে তাকে দেখতে হাসপাতালে আসেন। এ সময় তিনি শিক্ষানবিশ চিকিৎসক ডা. ইকরা ফেরদৌসী নিশাতের কক্ষে যান এবং তার সঙ্গে বাকবিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়েন। এক পর্যায়ে উত্তেজিত হয়ে ইকরার মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নেন এবং এক ঘণ্টা কক্ষের মধ্যে জিম্মি করে রাখেন ওই পুলিশ কর্মকর্তা।
এসআই মনোজ সরকার সমকালকে জানান, হাসপাতালে চিকিৎসাধীন তার এক নিকটাত্মীয়ের অবস্থা আশঙ্কাজনক। চিকিৎসকদের বারবার ডাকার পরও না পেয়ে চিকিৎসকদের কক্ষে গিয়ে রোগীর কাছে আসার অনুরোধ করলে ডা. ইকরা তার সঙ্গে দুর্ব্যবহার করেন। এ নিয়ে দু'জনের মধ্যে বাকবিতণ্ডা হয়েছে মাত্র।
শেবাচিমের পরিচালক ডা. এসএম সিরাজুল ইসলাম জানান, শিক্ষানবিশ চিকিৎসকরা কর্মবিরতি করলেও অন্য চিকিৎসকরা হাসপাতালের চিকিৎসাসেবা স্বাভাবিক রেখেছেন। ফলে হাসপাতালের চিকিৎসায় কোনো প্রভাব পড়েনি। শিক্ষানবিশ চিকিৎসকদের অভিযোগ তদন্ত করে ব্যবস্থা নেবেন।