কক্সবাজারে হচ্ছে কারিগরি শিক্ষার বৃহৎ প্রশিক্ষণ কেন্দ্র

প্রকাশ: ০৫ মার্চ ২০১৭      

সাবি্বর নেওয়াজ

কারিগরি শিক্ষায় দেশের সর্ববৃহৎ শিক্ষক প্রশিক্ষণ কেন্দ্র স্থাপন করা হবে সমুদ্রশহর কক্সবাজারে। প্রতিষ্ঠিত হলে সেখান একসঙ্গে প্রায় ১০ হাজার প্রশিক্ষণার্থীকে প্রশিক্ষণ দেওয়া যাবে। এটি স্থাপনের জন্য প্রাথমিকভাবে কক্সবাজার শহরের রুমালিয়াছড়া এলাকার 'কক্সবাজার টেকনিক্যাল স্কুল অ্যান্ড কলেজে'র (টিএসসি) তিন একর জমি নির্বাচন করা হয়েছে। এটির নাম হবে 'জাতীয় কারিগরি শিক্ষক লিডারশিপ ট্রেনিং সেন্টার'।
জানতে চাইলে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগের ভারপ্রাপ্ত সচিব মো. আলমগীর সমকালকে বলেন, প্রাথমিকভাবে কক্সবাজারে আন্তর্জাতিক মানের একটি কারিগরি শিক্ষক প্রশিক্ষণ কেন্দ্র প্রতিষ্ঠার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এ জন্য মন্ত্রণালয়ের কয়েকজন কর্মকর্তাকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। তারা সম্ভাব্যতা যাচাই করে দেখছেন। আধুনিক কী কী কোর্স সেখানে চালু করা যায়, অত্যাধুনিক কী কী যন্ত্রপাতি সেখানে বসানো যায়, এসব বিষয় খতিয়ে দেখা হচ্ছে। তিনি বলেন, শিগগিরই শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তরের (ইইডি) প্রধান প্রকৌশলী সেখানে সরেজমিনে গিয়ে দেখবেন। কেন্দ্রটির ভবন স্থাপনের জন্য তিনি নকশা প্রণয়নের উদ্যোগ নেবেন। সচিব বলেন, এই কেন্দ্রে গতানুগতিক কারিগরি শিক্ষা নয়, আন্তর্জাতিক মানের কারিগরি শিক্ষা দেওয়া হবে যেন এখান থেকে পাস করে বেরিয়ে সকলে আন্তর্জাতিক চাকরির বাজারে দক্ষতা নিয়ে প্রবেশ করতে পারেন।
কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, সচিব মো. আলমগীরের নেতৃত্বে উচ্চ পর্যায়ের একটি প্রতিনিধি দল গত ১২ ফেব্রুয়ারি কক্সবাজার টেকনিক্যাল স্কুল অ্যান্ড কলেজ পরিদর্শন করে। তখন সচিব মন্ত্রণালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের সেখানে একটি 'জাতীয় কারিগরি শিক্ষক লিডারশিপ ট্রেনিং সেন্টার' স্থাপনের উদ্যোগ নিতে নির্দেশ দেন। জানা যায়, কক্সবাজারে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়েরও অনুরূপ একটি প্রতিষ্ঠান রয়েছে। সেটি ১০তলা ভবন বিশিষ্ট।
সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো জানায়, রুমালিয়াছড়া সড়কে অবস্থিত কক্সবাজার টিএসসি ৩ দশমিক শূন্য ৯ একর জমির ওপর স্থাপিত। প্রতিষ্ঠানটির দক্ষিণ পাশে প্রায় ১ দশমিক ৫ একর জমিতে প্রাক্তন সুপার কোয়ার্টার, স্টাফ কোয়ার্টার ও ছাত্রাবাস রয়েছে। বর্তমান এ ভবনগুলোর সবই পরিত্যক্ত। পরিত্যক্ত এ জমিতেই 'জাতীয় কারিগরি শিক্ষক লিডারশিপ ট্রেনিং সেন্টার' গড়ে তোলার প্রাথমিক পরিকল্পনা করা হয়েছে।
প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের লীলাভূমি কক্সবাজারের পর্যটন ব্যবস্থাকে আরও আকর্ষণীয় করে তোলা, হোটেল ম্যানেজমেন্ট ও ট্যুরিজম খাতে আরও দক্ষ জনশক্তি গড়ে তোলার জন্য নতুন নতুন বিষয় এই ট্রেনিং সেন্টারে খোলা হবে। কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগের ভারপ্রাপ্ত সচিব মো. আলমগীর সমকালকে বলেন, কক্সবাজার টিএসসির জরাজীর্ণ ভবনেই গড়ে তোলা হবে 'জাতীয় কারিগরি শিক্ষক লিডারশিপ ট্রেনিং সেন্টার'। কক্সবাজারের পর্যটন ব্যবস্থাকে পর্যটকদের কাছে আরও কীভাবে আকর্ষণীয় করে তোলা যায়, তা নিয়েও গবেষণা করে নতুন নতুন কোর্স চালু করা হবে। এটি হবে কারিগরি শিক্ষার একটি 'সেন্টার অব এক্সিলেন্স'।
সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো জানিয়েছে, কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তরের আওতাধীন 'স্কিলস্ অ্যান্ড ট্রেনিং এনহান্সমেন্ট প্রজেক্ট' (স্টেপ) থেকে এই প্রশিক্ষণ কেন্দ্র স্থাপনের ব্যয় নির্বাহ করা হতে পারে। এ প্রকল্পের মূল কাজ হলো, দেশের স্বল্প শিক্ষিত তরুণদের প্রশিক্ষণের মাধ্যমে দক্ষ জনবল হিসেবে তৈরি করা ও সনদ অর্জনের সুযোগ করে দেওয়া। বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তরের এ প্রকল্পের আওতায় ২০১০ সাল থেকে অনুমোদিত প্রশিক্ষণ প্রতিষ্ঠানগুলো কারিগরি শিক্ষা ও প্রশিক্ষণের মাধ্যমে দেশ-বিদেশে মানসম্মত কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টির লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছে। এতে দেশের বেকারত্ব প্রশমনে তা প্রত্যক্ষ ভূমিকা রাখছে, বেকারদের আত্মবিশ্বাসী করে গড়ে তোলা হচ্ছে।
সূত্র জানায়, কক্সবাজারের এ প্রতিষ্ঠানে যেসব বিষয়ে প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে তার মধ্যে রয়েছে_ হোটেল ম্যানেজমেন্ট অ্যান্ড ট্যুরিজম, ফুড অ্যান্ড নিউট্রিশনস, ইলেকট্রিক্যাল ইনস্টলেশন অ্যান্ড মেইনটেন্যান্স (সিভিল কনস্ট্রাকশন), প্ল্যাম্বিং, মোটরসাইকেল সার্ভিসিং, ব্লক-বাটিক অ্যান্ড স্ক্রিন প্রিন্টিং, সুইং মেশিন অপারেশন, টেইলারিং অ্যান্ড ড্রেস মেকিংসহ আরও নানা বিষয়।