এসডিজি অর্জনে দাতাদের প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়ন দাবি

প্রকাশ: ০৯ এপ্রিল ২০১৭      

সমকাল প্রতিবেদক

টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা (এসডিজি) বাস্তবায়নে দেশে বিদ্যমান আর্থ-সামাজিক ও উন্নয়ন বৈষম্য হ্রাস, গণতন্ত্রকে শক্তিশালী করা এবং এই প্রক্রিয়ায় সবার অংশগ্রহণ নিশ্চিতের দাবি জানিয়েছে ইক্যুইটিবিডিসহ ২২টি নাগরিক সংগঠন। একইসঙ্গে এর জন্য দাতাদের দেওয়া প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়নেরও দাবি জানিয়েছেন তারা। গতকাল শনিবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের কনফারেন্স হলে এক সংবাদ সম্মেলনে তারা এ দাবি জানান। ইক্যুইটিবিডির রেজাউল করিম চৌধুরীর সঞ্চালনায় এতে মূল বক্তব্য উপস্থাপন করেন প্রতিষ্ঠানটির কর্মকর্তা সৈয়দ আমিনুল হক। আরও বক্তব্য রাখেন উন্নয়ন ধারা ট্রাস্টের আমিনুর রসুল বাবুল, দ্বীপ উপন্নয়ন সংস্থার রফিকুল ইসলাম, জাতীয় শ্রমিক জোটের ড. মেসবাহ উদ্দিন আহমেদ, কৃষক ফেডারেশনের জায়েদ ইকবাল খান, জন অধ্যয়ন কেন্দ্রের মো. শহীদুল্লাহ ও বাংলাদেশ ভূমিহীন সমিতির সুবল সরকার।
সৈয়দ আমিনুল হক বলেন, 'এসডিজি বাস্তবায়নের ক্ষেত্রে বাংলাদেশের অন্যতম প্রধান সমস্যা দুর্নীতি। দুর্নীতির কারণে দেশের শতকরা দুই ভাগ জিডিপি কম অর্জিত হয়। তাই দুর্নীতি ও জনগণের সম্পদের অপচয় বন্ধ করতে হবে। অবাধ ও নিরপেক্ষ নির্বাচন, মুক্ত গণমাধ্যম, স্বাধীন বিচার বিভাগ, আইনের শাসন, স্বায়ত্তশাসিত শক্তিশালী স্থানীয় সরকার এবং গণতান্ত্রিক প্রতিষ্ঠানগুলোর স্বাধীনতা নিশ্চিত করা এসডিজি অর্জনের আবশ্যকীয় শর্ত।'
অন্য বক্তারা বলেন, এসডিজির প্রধান লক্ষ্যই সরকারের সপ্তম পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনার প্রধান লক্ষ্য হিসেবে অন্তর্ভুক্ত হয়েছে। যেখানে টেকসই উন্নয়নে দারিদ্র্য দূরীকরণই হচ্ছে সরকারের প্রধান অর্জনযোগ্য কৌশল। দারিদ্র্য দূরীকরণে বাংলাদেশ দ্রুত সাফল্য পেলেও উন্নয়ন পরিকল্পনাবিদ এবং বিশেষজ্ঞদের মতে, এসডিজি অর্জনে এখনও আমাদের সামনে অনেক চ্যালেঞ্জ রয়েছে। টেকসই উন্নয়ন শুধু দারিদ্র্য দূরীকরণ লক্ষ্যের ওপর নির্ভর করে না। সে ক্ষেত্রে বাংলাদেশকে অবশ্যই দারিদ্র্য দূরীকরণের পাশাপাশি অন্যান্য যেসব বিষয় রয়েছে সেগুলোর প্রতিও সমানভাবে নজর দিতে হবে।
অন্য আয়োজক সংগঠনগুলো হচ্ছে, অনলাইন নলেজ সোসাইটি, অর্পণ, উদ্দীপন বাংলাদেশ, উন্নয়ন ধারা ট্রাস্ট, এসডিও, কোস্ট ট্রাস্ট, জাতীয় কৃষানি শ্রমিক সমিতি, জাতীয় শ্রমিক জোট, ডাক দিয়ে যাই, দ্বীপ উন্নয়ন সংস্থা, পিএসআই, বাংলাদেশ শ্রমিক ফেডারেশন, বাংলাদেশ কৃষক ফেডারেশন (জাই), বাংলাদেশ ভূমিহীন সমিতি, কৃষি ফার্ম শ্রমিক ফেডারেশন, মুক্তির ডাক, লেবার রিসোর্স সেন্টার, সংগ্রাম, সিডিপি, হিউম্যানিটি ওয়াচ, সিনার্জি বাংলাদেশ এবং জ্ঞান অধ্যয়ন কেন্দ্র।