গোলটেবিলে বক্তারা

এসডিজি অর্জনে সম্মিলিত প্রচেষ্টা প্রয়োজন

প্রকাশ: ০৯ জুলাই ২০১৭      

সমকাল প্রতিবেদক

টেকসই উন্নয়নের লক্ষ্য (এসডিজি) অর্জনে সমন্বিত উদ্যোগ গ্রহণের জন্য সরকার ও বেসরকারি খাতের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন বক্তারা। তারা বলেন, এসডিজি অর্জনে প্রত্যেক ব্যক্তিকে অবশ্যই সহযোগিতা করতে হবে এবং প্রচেষ্টা চালাতে হবে। অর্থনৈতিক নানা বৈষম্য কমিয়ে আনতে সবাইকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান তারা। গতকাল শনিবার 'এসডিজিএস অ্যান্ড হিউম্যান রাইটস' শীর্ষক এ গোলটেবিল বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।
এ গোলটেবিল বৈঠকে রাজধানীর বসুন্ধরা আবাসিক এলাকায় ইস্ট ওয়েস্ট মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেডের সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত বৈঠকে বক্তারা টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যসমূহ (এসডিজিএস) অর্জনের কার্যক্রম সফল বাস্তবায়ন নিশ্চিত করতে সম্মিলিত প্রচেষ্টার ওপর গুরুত্বারোপ করেন।
জাতীয় মানবাধিকার কমিশন (এনএইচআরসি) এবং ইংরেজি দৈনিক ডেইলি সান এই গোলটেবিল বৈঠকের আয়োজন করে। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান কাজী রিয়াজুল হক। উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এসডিজি বিষয়ক মুখ্য সমন্বয়ক মো. আবুল কালাম আজাদ, মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব নাসিমা বেগম, পরিকল্পনা কমিশনের সদস্য ড. শামসুল আলম, বিজিএমইএর জ্যেষ্ঠ সহসভাপতি ফারুক হাসান, জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের সদস্য মো. নজরুল ইসলাম, নুরুন্নাহার ওসমানী, এনামুল হক চৌধুরী, অধ্যাপক আক্তার হোসেন, মেঘনা গুহঠাকুরতা, সাবেক সদস্য এরোমা দত্ত, ঢাবি অধ্যাপক মেজবাহ কামাল, আদিবাসী অধিকার কর্মী সঞ্জীব দ্রং, ইউনাইটেড ইন্টারন্যাশনাল বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক হামিদুল হক, ডেইলি সান সম্পাদক এনামুল হক চৌধুরী এবং নির্বাহী সম্পাদক শিয়াবুর রহমান।
কাজী রিয়াজুল হক বলেন, বাংলাদেশের সংবিধানে মানবাধিকারের বিষয়টি সুস্পষ্টভাবে উল্লেখ করা হয়েছে। এসডিজির ১৬৯টি টার্গেটের মধ্যে ১৫২টি টার্গেটই মানবাধিকারের সঙ্গে সম্পর্কিত। তাই এসডিজি অর্জনে মানবাধিকারের বিষয়টি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। বৈঠকের আলোচনায় টেকসই উন্নয়নে বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থাগুলোর ভূমিকা, মাতৃমৃত্যু, নারীর প্রতি আচরণ, বৈষম্য, দারিদ্র্য, জলবায়ু পরিবর্তন, পরিবেশবান্ধব শিল্পায়ন, মানসম্মত শিক্ষা, অংশগ্রহণ ও ন্যায্যতাসহ নানা বিষয় উঠে আসে।