দুদকের অনুসন্ধান

আপন জুয়েলার্সের মালিক দিলদারসহ তিন ভাইকে তলব

প্রকাশ: ১৫ অক্টোবর ২০১৭

সমকাল প্রতিবেদক


আপন জুয়েলার্সের মালিক দিলদার আহমেদ সেলিম, তার ভাই গুলজার আহমেদ ও আজাদ আহমেদকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তলব করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। দুদকের উপ-পরিচালক এসএমএম আখতার হামিদ ভূঞা স্বাক্ষরিত নোটিশে তাদের আগামী বুধবার রাজধানীর সেগুনবাগিচায় দুদকের প্রধান কার্যালয়ে হাজির হতে বলা হয়েছে।
সূত্র জানায়, তিন ভাইয়ের বিরুদ্ধে জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের অভিযোগ অনুসন্ধান করছেন উপ-পরিচালক আখতার হামিদ। বুধবার তাদের অভিযোগ সম্পর্কে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে।
তাদের বিরুদ্ধে দুদকে পেশ করা অভিযোগে বলা হয়, শুল্ক্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তরের কাছে
আপন জুয়েলার্স কর্তৃপক্ষের প্রদর্শিত স্বর্ণ ও হীরার মূল্য প্রায় ১০ কোটি টাকা। এদিকে অধিদপ্তরের অভিযানে প্রাপ্ত স্বর্ণ ও হীরার অলঙ্কারের মূল্য ২৮৪ কোটি টাকা। এ ক্ষেত্রে ২৭৪ কোটি টাকার স্বর্ণ ও হীরার তথ্য গোপন করা হয়। যা অপ্রদর্শিত বা জ্ঞাত আয় বহির্ভূত সম্পদ। চোরাইপথে ওইসব মূল্যবান সম্পদ আমদানি করে দিলদারসহ তিন ভাই ব্যবসা জমিয়েছিলেন।
সূত্র জানায়, অভিযোগটি দুদকের তফসিলভুক্ত হওয়ায় কমিশন সেটি অনুসন্ধানের সিদ্ধান্ত নেয়। অভিযুক্তরা সম্পদের তথ্য গোপন করে দুদক আইন-২০০৪-এর ২৬(২) ও জ্ঞাত আয় বহির্ভূত সম্পদ অর্জন করে ২৭(১) ধারা লগ্ধঘন করেছেন। যা শাস্তিযোগ্য অপরাধ।
রাজধানীর বনানীতে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী ধর্ষণ মামলার প্রধান আসামি শাফাত আহমেদের বাবা দিলদার আহমেদ সেলিম। ওই ধর্ষণের ঘটনার পর দিলদারের সম্পদের বৈধতা নিয়ে প্রশ্ন ওঠে।
জানা গেছে, জিজ্ঞাসাবাদ শেষে অভিযুক্তদের কাছে তাদের স্থাবর-অস্থাবর সম্পদের হিসাব চাওয়া হবে। পরে ওই সম্পদ যাচাই করা হবে। অনুসন্ধানে নামে-বেনামে জ্ঞাত আয় বহির্ভূত সম্পদ পাওয়া গেলে তাদের বিরুদ্ধে মামলা করা হবে।