প্রধান বিচারপতি বিবৃতিতে সত্য কথা বলেছেন মির্জা ফখরুল

প্রকাশ: ১৫ অক্টোবর ২০১৭

সমকাল প্রতিবেদক


প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার বিবৃতিই প্রমাণ করে, বিচার বিভাগের ওপর সরকার নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠার চেষ্টা করেছে। প্রধান বিচারপতি এরই মধ্যে বলেই দিয়েছেন, সরকার এখন সর্বোচ্চ আদালতের ওপর নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠার চেষ্টা করছে। এখানে আমাদের নতুন করে বলার কিছু নেই। প্রধান বিচারপতি তার বিবৃতিতে সত্য কথাগুলো বলে দিয়েছেন। এতেই প্রমাণিত হয়, সরকার বিচার বিভাগের ওপর নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠার চেষ্টা করছে। প্রধান বিচারপতির অস্ট্রেলিয়া গমন প্রসঙ্গে গতকাল শনিবার দুপুরে নয়াপল্টনের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এসব কথা বলেন।
এ সময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান নিতাই রায় চৌধুরী, কেন্দ্রীয় নেতা সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, খায়রুল কবির খোকন, মুনির হোসেন, কাজী আবুল বাশার, রফিকুল ইসলাম রাসেল, সাইফুল ইসলাম পটু প্রমুখ।
বিচার বিভাগকে রক্ষায় সবাইকে সোচ্চার হওয়ার আহ্বান জানিয়ে মির্জা ফখরুল বলেন, 'যারা দেশকে ভালোবাসে, যারা দেশপ্রেমিক, যারা শাসনতন্ত্র নিয়ে কাজ করতে চায়, যারা মুক্ত রাজনীতি চর্চা করতে চায় তাদের দায়িত্ব রাষ্ট্রকে রক্ষা করা, তাদের দায়িত্ব জুডিশিয়ারিকে রক্ষা করা, তাদের দায়িত্ব দেশের মানুষের অধিকারকে রক্ষা করা।' তিনি এ পরিস্থিতিতে সব সচেতন মানুষ, দেশপ্রেমিক শক্তি ও সব পেশাজীবীকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানান।
ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায়ের কারণেই প্রধান বিচারপতিকে ছুটিতে যেতে হয়েছে কি-না- প্রশ্ন করা হলে মির্জা ফখরুল বলেন, 'অনেকে এটা আশঙ্কা করছে। আমরাও একই আশঙ্কা করছি। রায় কী হলো না হলো, আমাদের মাথাব্যথা নেই। আমরা বলতে চাচ্ছি, জুডিশিয়ারিকে রক্ষা করতে হবে, আমার দেশের স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্ব-শাসনতন্ত্রকে রক্ষা করতে হবে।' তিনি আরও বলেন, প্রধান বিচারপতির বিবৃতি থেকে একটা কথা বেরিয়ে এসেছে, তার সম্পর্কে সরকারকে ভুল বোঝানো হচ্ছে, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী অভিমান করেছেন।

হকারকে ভুল বোঝানো হচ্ছে- কে করছে? কারা করছে?
তিনি বলেন, শারীরিক অবস্থা নিয়ে প্রধান বিচারপতির বক্তব্য প্রমাণ করেছে, বিএনপির বক্তব্য সত্য। তিনি বলেন, প্রধান বিচারপতি বিদেশ যাওয়ার পথে গাড়ি থেকে নেমে যে বক্তব্য দিয়েছেন তা টেলিভিশনে দেখানো হয়েছে। তার বক্তব্যে আমরা নিশ্চিত, আমরা যে কথাগুলো বলে আসছিলাম, তা সর্বাত্মক সত্য।
মির্জা ফখরুল বলেন, 'কোন প্রেক্ষিতে প্রধান বিচারপতিকে দেশ ছেড়ে যেতে হয়েছে তা মনে রাখতে হবে। ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায়ের পর সরকারি দলের দায়িত্বজ্ঞানহীন প্রতিক্রিয়া ছিল অস্বাভাবিক ও নজিরবিহীন।' তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ রাজনৈতিকভাবে দেউলিয়া হয়ে গেছে বলেই বিচার বিভাগের বিরুদ্ধে এমন কর্মকান্ড চালাচ্ছে।
বিচার বিভাগের এ রকম অবস্থায় উচ্চ আদালতে নিষ্পত্তির অপেক্ষায় থাকা খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলায় গ্রেফতারি পরোয়ানা জারির প্রসঙ্গ টেনে মির্জা ফখরুল বলেন, খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে এই গ্রেফতারি পরোয়ানা জারিতে সরকারের উদ্দেশ্য স্পষ্ট। তারা দ্রুত এসব মামলার নিষ্পত্তি চায় এবং তাকে সাজা দিতে চায়।