রাজধানীসহ সারাদেশে বিএনপির বিক্ষোভ মিছিল

প্রকাশ: ১৫ অক্টোবর ২০১৭

সমকাল প্রতিবেদক


বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারির প্রতিবাদে গতকাল শনিবার রাজধানীসহ সারাদেশে বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করেছে বিএনপি। তবে বিভিন্ন জেলায় বিক্ষোভ মিছিলে পুলিশ বাধা দিয়ে ছত্রভঙ্গ করে দেয় বলে অভিযোগ করেছেন দলটির নেতারা। বরিশালে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে বিএনপির ১৫ নেতা-কর্মী আহত হন। আটক করা হয়েছে সিটি কাউন্সিলরসহ আটজনকে। নারায়ণগঞ্জে যুবদলের মিছিলে পুলিশের লাঠিচার্জে আরও ১৫ জন আহত হন। এ ছাড়া মৌলভীবাজার, মাগুরা ও গাইবান্ধার সাদুল্যাপুরে মিছিল থেকে ১৫ নেতা-কর্মীকে আটক করে পুলিশ। তবে রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় বিক্ষোভ মিছিল করেছেন মহানগর বিএনপি নেতা-কর্মীরা। নগরীর কোথাও কোথাও পুলিশের গ্রেফতারের ভয়ে নেতা-কর্মীরা ঝটিকা মিছিল করেন।
প্রত্যক্ষদর্শী ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, শ্যামপুর-কদমতলী থানা বিএনপির মিছিলে পুলিশ বাধা দেয়। এ সময় মিছিল থেকে তিনজনকে গ্রেফতার করা হয়। শ্যামপুর থানা বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনের উদ্যোগে দুপুর ১২টার দিকে দয়াগঞ্জ-জুরাইন নতুন সড়কে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির দ্বিতীয় যুগ্ম সম্পাদক এবং শ্যামপুর থানা বিএনপির সভাপতি মো. মজিবুর রহমান খান, সাধারণ সম্পাদক আ ন ম সাইফুল ইসলাম
ও সিনিয়র সহসভাপতি মো. মোজাম্মেল হোসেনের নেতৃত্বে বিক্ষোভ মিছিল করা হয়। মিছিলটি গেন্ডারিয়া রেলস্টেশন থেকে মুন্সিপাড়ার সামনে পৌঁছলে পুলিশের বাধায় ছত্রভঙ্গ হয়ে যায়। পুলিশ সেখান থেকে আহমেদ, রাজা ও সুমন নামে তিন বিএনপি কর্মীকে গ্রেফতার করে।
উত্তরা পশ্চিম থানা বিএনপির সিনিয়র সহসভাপতি হাজি দুলালের নেতৃত্বে বেলা সাড়ে ১১টায় উত্তরা পশ্চিম থানা বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনের উদ্যোগে বিক্ষোভ মিছিল বের হয়। মিছিলটি উত্তরা হাউস বিল্ডিং মাসকট প্লাজার সামনে থেকে উত্তরা ১১নং সেক্টর জমজম মার্কেটের সামনে গিয়ে শেষ হয়।
ডেমরা থানা বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনের উদ্যোগে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির সহসভাপতি জয়নাল আবেদীন রতন চেয়ারম্যানের নেতৃত্বে দুপুরে ডেমরা স্টাফ কোয়ার্টারের সামনে থেকে ডেমরা-রামপুরা প্রধান সড়কের আমুলিয়া মডেল টাউন পর্যন্ত এলাকায় বিক্ষোভ মিছিল বের হয়।
লালবাগ থানা বিএনপি দুপুর ১২টায় নবাবগঞ্জ বাজার থেকে লালবাগকেল্লার মোড় গেট পর্যন্ত এলাকায় বিক্ষোভ মিছিল করে। মোহাম্মদপুর তিন রাস্তার মোড় ভাঙা মসজিদ এলাকায় বিক্ষোভ মিছিল করে মোহাম্মদপুর থানা শ্রমিক দল।
দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানা বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনের নেতা-কর্মীরা ১৪টি স্থানে বিক্ষোভ মিছিল করে। মিছিল চলাকালে বিভিন্ন স্থান থেকে শামীম, লিটনসহ বেশ কয়েকজনকে পুলিশ আটক করে নিয়ে যায়। হাসনাবাদ পিডিবি রোড থেকে মাজার, খেজুরবাগ মাজার থেকে নাহার ভবন, পার-গেন্ডারিয়া বাজার থেকে প্রাইমারি স্কুল পর্যন্ত মিছিল হয়। মিছিলে নেতৃত্বে দেন বিএনপি, যুবদল, স্বেচ্ছাসেবক দল, ছাত্রদলসহ অন্যান্য অঙ্গসংগঠনের নেতারা।