শক্তিশালী কাঠামো ও নিরপেক্ষ ভূমিকার জন্য বর্তমান নির্বাচন কমিশন একটি গ্রহণযোগ্য অবস্থানে রয়েছে। গাজীপুর ও খুলনা সিটির নির্বাচনে লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড তৈরিতে কোনো ঘাটতি ছিল না। আসন্ন জাতীয় নির্বাচনেও এ ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে হবে।

বাংলাদেশ হেরিটেজ ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে 'নির্বাচন ও লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড' শীর্ষক সেমিনারে বক্তারা এসব কথা বলেন। গতকাল বুধবার রাজধানীর সিরডাপ মিলনায়তনে এ সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়।

সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেন, বিএনপি কখনও লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড তৈরি করেনি। বতর্মানে সাংবিধানিকভাবে নির্বাচন কমিশন শক্তিশালী। তাই নির্বাচন নিয়ে সংশয়ের কিছু নেই। আগামী নির্বাচন সংবিধান অনুযায়ীই হবে। অজুহাত সৃষ্টি করে কোনো লাভ হবে না। নাসিম আরও বলেন, সাংবিধানিকভাবে প্রধান নির্বাচন কমিশনার শক্তিশালী। শক্তি ব্যবহার করতে পারবেন কি-না, এটা ব্যক্তির ওপর নির্ভর করে। এজন্য ব্যবস্থাকে দোষ দিয়ে লাভ নেই।

বিশেষ অতিথি জাসদের সাধারণ সম্পাদক শিরীন আখতার এমপি বলেন, খালেদা জিয়ার মতো দুর্নীতির দায়ে দণ্ডিতকে ক্ষমতায় দেখতে চায় না জনগণ।

প্রধানমন্ত্রীর তথ্য উপদেষ্টা ইকবাল সোবহান চৌধুরী বলেন, 'লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড' কেউ কাউকে দেয় না। তাই গাজীপুর সিটি নির্বাচনকেও প্রশ্নবিদ্ধ করার অপপ্রচেষ্টা ছিল তাদের।

সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন সাবেক রাষ্ট্রদূত ওয়ালিউর রহমান। বক্তব্য রাখেন তৃণমূল বিএনপির চেয়ারম্যান ব্যারিস্টার নাজমুল হুদা, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক, নিরাপত্তা বিশ্নেষক ইশফাক এলাহী চৌধুরী, সাবেক আইজিপি নুরুল হুদা, রংপুরের বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি অধ্যাপক নাজমুল আহসান কলিম উল্লাহ, সাবেক অডিটর অ্যান্ড কম্পট্রোলার জেনারেল মাসুদ আহমেদ, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব পীযূষ বন্দ্যোপাধ্যায়, শিক্ষাবিদ অধ্যাপক আবদুল মান্নান চৌধুরী ও মমতাজ লতিফ, সাংবাদিক নাঈমুল ইসলাম খান, সুভাষ সিংহ রায়, মাসুদা ভাট্টি, মুক্তিযোদ্ধা ইসমত কাদির গামা প্রমুখ। সঞ্চালনা করেন শারমিন চৌধুরী।

মন্তব্য করুন