বড়পুকুরিয়া কয়লা খনি দুর্নীতি কোম্পানি সচিবকে নির্দোষ দাবি করে মানববন্ধন

প্রকাশ: ০৮ আগস্ট ২০১৮      

দিনাজপুর প্রতিনিধি

দিনাজপুরের বড়পুকুরিয়া কয়লাখনিতে এক লাখ ৪৪ হাজার টন কয়লা লোপাটের ঘটনায় মানববন্ধন করেছে খনি এলাকার কিছু কয়লা ব্যবসায়ী, শ্রমিক ও এলাকাবাসী। তাদের দাবি, ওই ঘটনার সঙ্গে খনির মহাব্যবস্থাপক ও কোম্পানি সচিব আবুল কাশেম প্রধানিয়া জড়িত নন।

গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে কয়লাখনির গেটের সামনের সড়কে বিভিন্ন ব্যানার ও ফেস্টুন নিয়ে এ মানববন্ধন হয়। এতে কাশেম প্রধানিয়ার বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার করে অনতিবিলম্বে খনিতে স্বপদে বহাল রাখার দাবি জানানো হয়। কয়লা ব্যবসায়ী আরিফুল ইসলাম সুমন বলেন, কয়লাখনিতে দীর্ঘদিন ধরেই নিরলসভাবে কাজ করে আসছেন কোম্পানি সচিব আবুল কাশেম প্রধানিয়া। সম্প্রতি খনিতে কয়লা উধাও হওয়ার ঘটনায় তার কোনো সম্পৃক্ততা নেই। এ জন্য তার বিরুদ্ধে দায়ের হওয়া মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানাই। খনি শ্রমিক আলম বলেন, খনিতে কয়লা চুরি হয়েছে কি-না, তা তদন্তেই ধরা পড়বে। তবে যা-ই হোক না কেন, কোম্পানি সচিব কাশেম প্রধানিয়া এর সঙ্গে জড়িত নন। খনির স্বার্থে তাকে স্বপদে পুনর্বহালের দাবি জানান তিনি। এ সময় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন কয়লা ব্যবসায়ী রায়হান আলী, হাফিজুর রহমান ও আরিফুল ইসলাম এবং এলাকাবাসীর পক্ষে বক্তব্য দেন নূর নবী, মুশফিক, মাজিদুল ইসলাম প্রমুখ।

মানববন্ধনের আগে বিক্ষোভ মিছিল বের করেন তারা।

কয়লা লোপাটের ঘটনায় খনির সদ্য অপসারিত ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রকৌশলী হাবিব উদ্দিন আহমেদ, কোম্পানি সচিব কাশেম প্রধানিয়াসহ ১৯ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে গত ২৪ জুলাই মামলা করা হয়। পার্বতীপুর মডেল থানায় এ মামলা করেন বড়পুকুরিয়া কোল মাইনিং কোম্পানির ব্যবস্থাপক প্রশাসন মোহাম্মদ আনিছুর রহমান।