গরমে ত্বকের যত্ন

প্রকাশ: ০৮ আগস্ট ২০১৮

ডা. রাশেদ মোহাম্মদ খান

অধ্যাপক ও বিভাগীয় প্রধান

চর্ম ও যৌন রোগ বিভাগ

ঢাকা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল

তীব্র রোদে ত্বকে বিভিন্ন সমস্যা দেখা দিতে পারে। এ সময়ে খোলা আকাশের নিচে বেশি সময় হাঁটাচলা করলে সূর্যের অতিবেগুনি রশ্মি ত্বক ভেদ করে কোষের জন্য বিপদ ডেকে আনতে পারে। এমনকি ত্বকে ফোসকা পড়াসহ ত্বক বিবর্ণও হতে পারে। গরমে শরীরে ঘাম জমে ছত্রাক সংক্রমণ দেখা দিতে পারে। ঘাম শরীরের বিভিন্ন অংশে বিশেষ করে কুঁচকি, আঙুল ও জননাঙ্গে জমা হয়ে সেখানে ছত্রাক সংক্রমণের পথ বিস্তার করে দেয়। এ সময়ে ছত্রাক সংক্রমণ এড়াতে শরীরের ভাঁজগুলোতে ঘাম জমতে দেওয়া যাবে না। প্রত্যেক দিন আন্ডারওয়্যার ও মোজা পরিস্কার করতে হবে। পাশাপাশি সংক্রমণ হলে প্রয়োজনীয় ওষুধ সেবন করতে

হবে। গরমে শরীরে ঘামাচিও দেখা দিতে পারে। ঘামাচি থেকে পরিত্রাণ পেতে হলে কখনও সিনথেটিক পোশাক পরা যাবে না। পরিষ্কার পানি দিয়ে গোসল করতে হবে। ঘামাচির চুলকানি প্রতিরোধে অ্যান্টিহিস্টামিন ওষুধ সেবন করা যেতে পারে। এজন্য অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে। তীব্র গরমে মেয়েদের ঠোঁটের রঙ পরিবর্তন হতে পারে। কারও কারও ঠোঁট ফেটে জ্বালাপোড়াও করে। তাই এ সময়ে অবশ্যই সানস্ট্ক্রিন ক্রিম ত্বকে মেখে বাইরে বের হতে হবে। ক্রিমের গায়ে সান প্রটেকশন ফ্যাক্টর (এসপিএফ) লেখা নিশ্চিত হয়ে কিনতে হবে। মুখম লে এক চা চামচ এবং পুরো শরীরে দুই চা চামচ সানস্ট্ক্রিন ক্রিম বা লোশন মাখতে হবে। চোখে সানগ্লাস ব্যবহার করা ভালো। একই সঙ্গে গাঢ় রঙ এবং কালো পোশাক এড়িয়ে হালকা রঙের কিংবা সাদা রঙের পোশাক পরিধান করা উপকারী। প্রয়োজনে একাধিকবার গোসল করা যেতে পারে। এ ছাড়া সমস্যা থেকে পরিত্রাণের জন্য বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে ওষুধ সেবন করুন, ভালো থাকুন।