নড়িয়ায় পদ্মার ভাঙনে নিখোঁজ ৬, আহত ২০

প্রকাশ: ০৮ আগস্ট ২০১৮      

শরীয়তপুর প্রতিনিধি

শরীয়তপুরের নড়িয়া উপজেলার বিস্তীর্ণ এলাকা আকস্মিকভাবে পদ্মা

নদীর গর্ভে বিলীন হয়ে গেছে। এ সময় তিনটি দোকান হারিয়ে গেছে। এ ঘটনায় অন্তত ৬ জন নিখোঁজ রয়েছেন। গতকাল মঙ্গলবার বিকেলে উপজেলার সাধুর বাজারে এ ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, সাধুর বাজারে পদ্মা নদীর ডান তীর দীর্ঘদিন যাবৎ তীব্র গতিতে ভাঙছে। আর সেই ভাঙন দেখতে জেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে লোক এসে জড়ো হয়। প্রতিদিনের মতো গতকালও বহু লোক জড়ো হয় সেখানে। বিকেল পৌনে ৩টার দিকে আকস্মিকভাবে বিস্তীর্ণ এলাকা পদ্মা নদীর গর্ভে চলে যায়। তখন ৩টি দোকান নদীতে ভেঙে পড়লে অন্তত ৬ জন নিখোঁজ হন। তারা হলেন- অন্তু মগদম, গোপী, মোশারফ চোকদার, নাসির হাওলাদার, মজু ছৈয়াল ও নাসির করাতি। এ সময় আহত হন প্রায় ২০ জন। তাদের নড়িয়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। দুর্ঘটনার শিকার সাধুর বাজার এলাকার ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী আব্দুল হাই বক্স বলেন, হঠাৎ তার দোকান ঘরটি কেঁপে ওঠে। মুহূর্তেই তিনটি দোকানঘরসহ লোকজন পানিতে তলিয়ে যায়। পরে লোকজন পানির ওপরে ভেসে উঠলে স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে আসেন। দুর্ঘটনার সময় সেখানে প্রায় ৪০ জন লোক ছিল।

নড়িয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আসলাম উদ্দিন বলেন, নিখোঁজদের উদ্ধারে পুলিশ, নৌ-পুলিশ ও শরীয়তপুর ফায়ার সার্ভিস কাজ করছে। নড়িয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সানজিদা ইয়াসমিন বলেন, নিখোঁজদের উদ্ধার তৎপরতা ও আহতদের পাশে থাকবে উপজেলা প্রশাসন।