সড়ক পরিবহনের নতুন আইন সাংঘর্ষিক নয় আইনমন্ত্রী

প্রকাশ: ০৮ আগস্ট ২০১৮

সমকাল প্রতিবেদক

সড়ক পরিবহন আইনের নতুন খসড়া হাইকোর্টের রায়ের সঙ্গে 'সাংঘর্ষিক' নয় বলে মন্তব্য করেছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক। তিনি বলেন, আদালতের রায়ের সঙ্গে এই আইনের সংঘর্ষ আছে বলে তার মনে হয় না। সড়ক পরিবহনে পূর্ণ শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনা, অব্যবস্থাপনা দূরীকরণ ও সড়ক যেন চলাচলের জন্য নিরাপদ ও নির্ভরশীল হতে পারে, সেজন্য এ আইন করা হয়েছে। আইনমন্ত্রী গতকাল মঙ্গলবার সুপ্রিম কোর্ট বার মিলনায়তনে বাংলাদেশ আইন সমিতি আয়োজিত এক অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

আইন সমিতির সভাপতি মো. কামরুজ্জামান আনসারীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন আপিল বিভাগের বিচারপতি মির্জা হোসেইন হায়দার, অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম, বার কাউন্সিলের ভাইস চেয়ারম্যান ইউসুফ হোসেন হুমায়ুন, অ্যাডভোকেট মোল্লা মো. আবু কাওছার, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলএলএম ল'ইয়ার্স অ্যাসোসিয়েশনের (ডুলা) সম্পাদক অ্যাডভোকেট আলী আহমেদ খোকন প্রমুখ। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৩তম শাহাদাতবার্ষিকী ও জাতীয় শোকদিবস উপলক্ষে এ আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।

আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেন, যেখানে তথ্যপ্রমাণ পাওয়া যাবে যে এটা স্বাভাবিক একটি সড়ক দুর্ঘটনা নয়, সেখানে তথ্যের, সাক্ষ্য-প্রমাণের ওপর নির্ভর করে দ বিধির ৩০২ বা ক্ষেত্রভেদে ৩০৪ ধারা বাস্তবায়ন করা যাবে। উচ্চ আদালতের

রায়ের সঙ্গে এ আইনের আর কোনো সংঘর্ষ থাকতে পারে না। পরিবহন মালিকদের দায়বদ্ধতাও এই আইনে আনা হয়েছে বলে উল্লেখ করেন তিনি।

অপর এক প্রশ্নের জবাবে আইনমন্ত্রী বলেন, ১৯৭৫ সালের পরে যে অব্যবস্থাপনা ছিল, সেটা দূর করতেই কিন্তু ১৯৮৩ সালে আইন (দ্য মোটর ভেহিক্যালস অর্ডিন্যান্স) করা হয়েছিল। তিনি বলেন, সংবিধানের পঞ্চম এবং সপ্তম সংশোধনী বাতিল হয়েছে, আইন বাংলা করার বাধ্যবাধকতা ও আধুনিকায়ন করে যুগোপযোগী করার প্রয়োজন ছিল। সেইসব দিক বিবেচনা করেই বর্তমান সরকার এ আইন করেছে। এখন পরিকাঠামো ভালোভাবে বাস্তবায়ন করতে হবে।