পাল্টা সংবাদ সম্মেলনে দাবি

প্রগতির শ্রমিক বদলিতে এমপি দিদারের হাত নেই

প্রকাশ: ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৮      

চট্টগ্রাম ব্যুরো

ডিও লেটার (আধা সরকারি পত্র) দিয়ে প্রগতি ইন্ডাস্ট্রিজের পাঁচ শ্রমিক-কর্মচারীকে অন্যত্র বদলির অভিযোগকে মিথ্যা বলে দাবি করেছেন চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডের এমপি দিদারুল আলমের সমর্থকরা। গতকাল রোববার দুপুরে চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবে বাড়বকুণ্ড শ্রমিক লীগ ও প্রগতি ইন্ডাস্ট্রিজ শ্রমিক-কর্মচারী লীগের ব্যানারে পাল্টা সংবাদ সম্মেলনে সংগঠন দুটির নেতারা এ দাবি করেন। তারা বলেন, এমপি দিদারুল আলমের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ করতেই দলের একটি পক্ষ সংবাদ সম্মেলন করে মিথ্যাচার করেছে। এতে শুধু এমপিরই নয়, দলের ভাবমূর্তিও ক্ষুণ্ণ করা হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন বাড়বকুণ্ড শ্রমিক লীগের কার্যকরী সভাপতি মাহাবুব আলম, সাধারণ সম্পাদক সামছুল আলম, প্রগতি ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড শ্রমিক-কমচারী লীগের (সিবিএ) সহসভাপতি আবদুল রাজ্জাক এবং সাধারণ সম্পাদক মো. আলাউদ্দিন। তারা বলেন, কিছু নামধারী শ্রমিক নেতা বহিরাগতদের ইন্ধনে প্রগতিতে বিভিন্ন অজুহাতে বিশৃঙ্খলা, এমনকি মারামারির মতো ঘটনা ঘটাচ্ছে। ফলে কর্তৃপক্ষ পাঁচ শ্রমিক-কর্মচারীকে প্রগতি থেকে ইস্পাত ও প্রকৌশল করপোরেশনের অন্য প্রতিষ্ঠানে বদলি করে। এর সঙ্গে এপি দিদারুল আলমের কোন সম্পৃক্ততা নেই। কিন্তু দলের একটি পক্ষ এমপির বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন করে তিনি ডিও লেটার দিয়েছেন দাবি করে মিথ্যাচার করে চলেছে।

প্রগতি ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডে কর্মরত আওয়ামী লীগ-যুবলীগের পাঁচ নেতাকর্মীকে বিএনপি-জামায়াত সাজিয়ে তাদের অন্যত্র বদলির জন্য ডিও লেটার দেওয়ার অভিযোগ আনা হয় সীতাকুণ্ডের এমপি দিদারুল আলমের বিরুদ্ধে। গত শনিবার চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবে সীতাকুণ্ডের বাড়বকুণ্ড ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি সাদাকাত উল্যাহ মিয়াজী এবং ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আওরঙ্গজেব সাবু এ সংবাদ সম্মেলন করেন। তারা বদলি আদেশ প্রত্যাহারের জন্য আগামী ১৭ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত সময় বেঁধে দেন। না হলে বাড়বকুণ্ডে মানববন্ধনসহ বিভিন্ন কর্মসূচি পালনের ঘোষণা দেন।