শিশু একাডেমি আইন হচ্ছে

মন্ত্রিসভায় উঠছে আজ

প্রকাশ: ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৮      

ফসিহ উদ্দীন মাহতাব

স্বাধীনতার পর এই প্রথম বাংলাদেশ শিশু একাডেমি আইন হতে যাচ্ছে। আজ সোমবার প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে মন্ত্রিসভার নিয়মিত বৈঠকে আইনটি চূড়ান্ত অনুমোদনের জন্য ওঠার কথা। এর পর এটি বিল আকারে উত্থাপনের জন্য জাতীয় সংসদে পাঠানো হবে। মহিলা ও শিশুবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের একটি সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

এর আগে চলতি বছর ৯ জুলাই শিশু একাডেমি আইনের খসড়া মন্ত্রিসভায় নীতিগত অনুমোদন পায়। গত ৪২ বছর ধরে ১৯৭৬ সালের অধ্যাদেশের মাধ্যমে শিশু একাডেমি পরিচালিত হয়ে আসছে। তবে সামরিক শাসন আমলে জারি করা আইনগুলো বাংলায় রূপান্তরের জন্য সুপ্রিম কোর্ট ও মন্ত্রিসভা সিদ্ধান্ত নেন। ওই বাধ্যবাধকতা থেকেই অধ্যাদেশগুলো প্রথমে আইনে পরিণত করতে নীতিগত অনুমোদনের জন্য মন্ত্রিসভায় নিয়ে আসা হয়। নতুন আইনে পরিচালনা ও প্রশাসন সম্পর্কিত একটি নতুন ধারা যুক্ত করা হয়েছে। বাংলাদেশ শিশু একাডেমি আইনের সেই ধারা অনুযায়ী সাধারণ পরিচালনা ও প্রশাসনের দায়িত্ব একটি বোর্ডের ওপর ন্যস্ত থাকবে।

একাডেমি যেসব ক্ষমতা প্রয়োগ ও কাজ করতে পারবে, পরিচালনা বোর্ডও তা পারবে। এই আইন অনুযায়ী, বাংলাদেশ শিশু একাডেমির প্রধান দপ্তর রাজধানী ঢাকায় স্থাপিত হবে। তবে সরকারের বিশেষ অনুমতি নিয়ে দেশের অন্যান্য বিভাগ ও জেলাগুলোতেও শিশু একাডেমির কার্যালয় করা যাবে।

নতুন আইন অনুযায়ী, শিশু একাডেমি পরিচালনার জন্য ১৭ সদস্যের একটি বোর্ড গঠন করা হবে। এ বোর্ডে শিশু একাডেমির চেয়ারম্যান, বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক, বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির মহাপরিচালক, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদের ডিন, মহিলা ও শিশুবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব পর্যায়ের একজন প্রতিনিধি, অর্থ ও সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের একজন করে প্রতিনিধি, তথ্য ও সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের একজন করে প্রতিনিধি, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়, স্বাস্থ্য বিভাগ ও শিশুকল্যাণ বিভাগের একজন করে প্রতিনিধি, শিশুদের কল্যাণে অবদান রাখেন এমন ব্যক্তিদের মধ্য থেকে সরকার মনোনীত চারজন ব্যক্তি থাকবেন, যাদের দু'জন মহিলা ও একাডেমির মহাপরিচালকও থাকবেন। এর সঙ্গে আইসিটি বিভাগের একজন প্রতিনিধি যুক্ত করার জন্যও নতুন করে বলা হয়েছে। চূড়ান্ত অনুমোদনের জন্য মন্ত্রিসভায়

আসা আইন অনুযায়ী একাডেমিক কার্যাবলি আগের মতো প্রায় একই থাকবে। তবে সামান্য কিছু পরিমার্জন করা হয়েছে। শিশুর বিকাশ ও কল্যাণে ভূমিকার জন্য শিশু একাডেমি থেকে সাম্মানিক ফেলোশিপ দেওয়া হবে। শিশু একাডেমি আইন সংসদে পাস হলে একটি বিধি তৈরি হবে। ওই বিধি অনুযায়ী শিশু একাডেমির চেয়ারম্যান নিয়োগ দেওয়া হবে। ভাষা, সাহিত্য, বিজ্ঞান, শিল্পকলা, সামাজিক বিষয়ের বিভিন্ন ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রয়েছে এমন ব্যক্তিকে সরকার চেয়ারম্যান নির্বাচিত করবে। তিনি সরকারি কর্মচারীও হতে পারেন।

নতুন আইনের ১০ ধারায় মহাপরিচালক নিয়োগের বিধান রেখে বলা হয়েছে, মহাপরিচালক একজন সার্বক্ষণিক কর্মকর্তা হবেন এবং তার চাকরির শর্তাবলি অনুযায়ী পরিচালিত ও বিধি দ্বারা নির্ধারিত হবে। এ আইন অনুযায়ী, প্রতি ছয় মাসে কমপক্ষে একবার বোর্ডের সভা হতে হবে। এই সভা কোথায় কখন কীভাবে হবে, তা চেয়ারম্যান নির্ধারণ করবেন। সভার কোরামের জন্য এক-তৃতীয়াংশ সদস্যের উপস্থিতি থাকতে হবে।













সর্বত্র নন-লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড বিরাজ করছে: মওদুদ

সর্বত্র নন-লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড বিরাজ করছে: মওদুদ

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ বলেছেন, দেশে নির্বাচনের ...

গম্ভীরের অবসরের কারণ ধোনী?

গম্ভীরের অবসরের কারণ ধোনী?

নাম গম্ভীর হলেও মাঠে তিনি মোটেও গম্ভীর ছিলেন না। গৌতম ...

জামিন পেলেন হুয়াওয়ের সিএফও

জামিন পেলেন হুয়াওয়ের সিএফও

চীনের টেলিকম জায়ান্ট হুয়াওয়ের প্রতিষ্ঠাতা রেন ঝেংফেইয়ের মেয়ে মেন ওয়ানঝো’কে ...

সুখী দাম্পত্যের চাবিকাঠি

সুখী দাম্পত্যের চাবিকাঠি

আপনারা কি এমন দম্পতি যারা নিজেদের মজার কোন ডাক নামে ...

রিকশাচালককে পিটিয়ে আ'লীগ থেকে বহিষ্কার হলেন সেই নারী

রিকশাচালককে পিটিয়ে আ'লীগ থেকে বহিষ্কার হলেন সেই নারী

রিকশাচালককে মারধরের ঘটনায় ঢাকা মহানগর উত্তরের ৭ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী ...

বাশারকে ছাড়ানোর অপেক্ষা মাশরাফির

বাশারকে ছাড়ানোর অপেক্ষা মাশরাফির

বাংলাদেশের সেরা অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা; এ নিয়ে সম্ভবত কোন ...

সেরে উঠছেন টেলি সামাদ, নেয়া হচ্ছে বেডে

সেরে উঠছেন টেলি সামাদ, নেয়া হচ্ছে বেডে

গুরুতর অসুস্থ হয়ে রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন ঢাকাই চলচ্চিত্রের ...

শেখ হাসিনাকে স্বাগত জানাতে প্রস্তুত কোটালীপাড়া

শেখ হাসিনাকে স্বাগত জানাতে প্রস্তুত কোটালীপাড়া

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ভোটের প্রচার শুরু করতে বুধবার গোপালগঞ্জের ...