কানে ফোড়া হলে

প্রকাশ: ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৮      

ডা. মনিলাল আইচ

অধ্যাপক ও বিভাগীয় প্রধান

ইএনটি অ্যান্ড হেড-নেক সার্জারি বিভাগ

স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ ও মিটফোর্ড হাসপাতাল

কানের ফোড়া একটি বহিঃকর্ণের সাধারণ অসুখ। এ রোগে বহিঃকর্ণের ত্বকে ঘেরা অংশ আক্রান্ত হয়ে থাকে। ফোড়া এক বা একাধিকবার হতে পারে। ডায়াবেটিস রোগীদের এ ধরনের ফোড়া বারবার হয়ে থাকে। কানে আঘাত, কান খোঁচানো, অ্যালার্জি প্রভৃতি কারণে বহিঃকর্ণের নালির স্বাভাবিক অবস্থান নষ্ট হয়ে গেলে সাধারণত ব্যাকটেরিয়া, ছত্রাক ইত্যাদির সংক্রমণ হয়ে থাকে। বহিঃকর্ণের সংক্রমণের ফলে যেসব লক্ষণ অনুভূত হয়, সেগুলোর মধ্যে কানে অস্বস্তি অনুভব করা, চুলকানি, তীব্র ব্যথা বিশেষ করে কান নাড়াচাড়া, খাদ্যচর্বণ এবং মুখ খোলার সময় বেড়ে যায়, মুখ খুলতে কষ্ট হয়, কানে শুনতে অসুবিধা হয়, কানের সামনে ও পেছনের লসিকাগ্রন্থি

ফুলে যায় ও ব্যথা হয়, জটিল হলে ফোড়া থেকে পুঁজ কানের সামনে ও মধ্যকর্ণেও ছড়িয়ে পড়া অন্যতম। এ রোগ প্রতিরোধের জন্য কান পরিস্কার-পরিচ্ছন্ন রাখা, গোসলের পর কান শুকনো রাখা, ময়লা কাঠি বা অন্যকিছু দিয়ে কান খোঁচানো থেকে বিরত থাকা; নাক-কান-গলা রোগ বিশেষজ্ঞের পরামর্শ ছাড়া কানে কোনো প্রকার ড্রপ বা ওষুধ ব্যবহার করা যাবে না, ডায়াবেটিস রোগ থাকলে উপযুক্ত চিকিৎসার মাধ্যমে নিয়ন্ত্রণে রাখতে হবে। প্রয়োজনে নাক-কান-গলা বিশেষজ্ঞের তত্ত্বাবধানে কানের ময়লা পরিস্কার করালে উপকার পাওয়া যাবে। তবে এ ধরনের সমস্যায় বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী ওষুধ সেবন করুন, ভালো থাকুন।