বরিশালে মানববন্ধন বধ্যভূমি এলাকা থেকে স্থাপনা সরাতে ৪৮ ঘণ্টার আলটিমেটাম

প্রকাশ: ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৮      

বরিশাল ব্যুরো

বরিশাল নগরীর কীর্তনখোলা নদী তীরবর্তী বধ্যভূমি সংলগ্ন এলাকা থেকে বাণিজ্যিক স্থাপনা উচ্ছেদে ৪৮ ঘণ্টার আলটিমেটাম দেওয়া হয়েছে। এ সময়ের মধ্যে উচ্ছেদ করা না হলে কাল বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় বধ্যভূমি এলাকায় মুক্তিযোদ্ধা-জনতার সমাবেশ আহ্বান করা হয়। গত সোমবার বিকেলে নগরীর অশ্বিনী কুমার হল সংলগ্ন সদর রোডে এক মানববন্ধনে এ ঘোষণা দেওয়া হয়। বরিশাল বধ্যভূমি সংরক্ষণ পরিষদের আহ্বানে অনুষ্ঠিত এ মানববন্ধনে মুক্তিযোদ্ধা, শিক্ষক, সাংস্কৃতিক কর্মী, সাংবাদিক ও মহিলা পরিষদ নেতৃবৃন্দসহ সর্বস্তরের নাগরিক প্রতিনিধিরা অংশগ্রহণ করেন। মানববন্ধন শেষে সর্বস্তরের নাগরিকদের একটি বিক্ষোভ মিছিল নগরীর প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে।

এ দাবির প্রতি সংহতি জানিয়ে মানববন্ধনে বক্তব্য দেন মুক্তিযোদ্ধা মাহবুব উদ্দিন আহমেদ (বীরবিক্রম), প্রেস ক্লাবের সাবেক সভাপতি অ্যাডভোকেট এসএম ইকবাল, জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কমান্ডার শেখ কুতুবউদ্দিন আহমেদ, মহানগর কমান্ডার মোখলেসুর রহমান, বাংলাদেশ কলেজ শিক্ষক সমিতির (বাকশিস) বিভাগীয় আহ্বায়ক অধ্যাপক মহসিন-উল ইসলাম হাবুল, মহিউদ্দিন মানিক (বীরপ্রতীক), উন্নয়ন

সংগঠক আনোয়ার জাহিদ, গ্রুপ থিয়েটার ফেডারেশানের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য সৈয়দ দুলাল, সাংস্কৃতিক সংগঠন সমন্বয় পরিষদের সভাপতি কাজল ঘোষ, রিপোর্টার্স ইউনিটির সাবেক সভাপতি সুশান্ত ঘোষ, মেট্রোপলিটন প্রেস ক্লাবের সভাপতি আবুল কালাম আজাদ, মহিলা পরিষদের সম্পাদক পুষ্প রানী চক্রবর্তী, মিন্টু কর প্রমুখ।

প্রসঙ্গত, সিটি করপোরেশনের ইজারা দাবি করে বধ্যভূমি সংলগ্ন কীর্তনখোলার তীরে বাণিজ্যিক স্থাপনা নির্মাণ করা হয়েছে। তবে জেলা প্রশাসন সূত্র জানিয়েছে, ওই জমি জেলা প্রশাসনের ১ নম্বর খাস খতিয়ানভুক্ত যা ইজারা দেওয়ার এখতিয়ার সিটি করপোরেশনের নেই।