ব্লাস্ট জাতীয় সম্মেলন

ধর্ষণ আইন সংস্কারসহ ২১ দফা সুপারিশ

প্রকাশ: ০৯ ডিসেম্বর ২০১৮      

সমকাল প্রতিবেদক

'ধর্ষণ আইন সংস্কার' সংক্রান্ত জাতীয় সম্মেলন থেকে ধর্ষকদের সাক্ষী-সুরক্ষা আইনে বিচার নিশ্চিত করার দাবি জানানো হয়েছে। ধর্ষণের শিকাররা (ভিকটিম) যেন কোনো ভয়-ভীতি ছাড়াই আদালতে গিয়ে সঠিকভাবে সাক্ষ্য দিতে পারেন, সে বিষয়টিও নিশ্চিত করার দাবি উঠে আসে। বিচারপ্রার্থীরা যেন আদালতের কাছে ন্যায়বিচার পান সে ব্যাপারে রাষ্ট্রসহ বিচার সংশ্নিষ্টদের সতর্ক থাকার অনুরোধ জানানো হয়। এ ছাড়া নারী-পুরুষের সমতা, অধিকার ও ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠার জন্য ধর্ষণ প্রতিরোধে আইনের সংস্কারসহ ২১ দফা সুপারিশ তুলে ধরা হয়।

শনিবার সিরডাপ আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে 'ধর্ষণ আইন সংস্কার' শীর্ষক এ জাতীয় সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। মানবাধিকার সংগঠন বাংলাদেশ লিগ্যাল এইড অ্যান্ড সার্ভিসেস ট্রাস্ট (ব্লাস্ট) আয়োজিত দিনব্যাপী এ সম্মেলনে দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে আইনজীবী ও মানবাধিকার কর্মীরা অংশ নেন।

তারা আরও বলেন, এসব স্পর্শকাতর মামলা তদারকি করতে কেন্দ্রীয়ভাবে একটি মনিটরিং সেল গঠন করা যেতে পারে। ভিকটিমকে কাউন্সেলিং করতে হবে। একই সঙ্গে নারীবান্ধব প্রসিকিউশন গঠনের সুপারিশ করেন তারা।

বাংলাদেশ মহিলা পরিষদের সভাপতি আয়শা খানমের সভাপতিত্বে এতে বক্তব্য দেন প্রথম আলোর সাংবাদিক কুররাতুল-আইন-তাহমিনা, বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল ডিবিসি নিউজের সম্পাদক নবনীতা চৌধুরী, ব্লাস্ট্রের টাস্ট্রি বোর্ডের সদস্য অ্যাডভোকেট জেডআই খান পান্না, জাতীয় আইনগত সহায়তা প্রদান সংস্থার পরিচালক জাফরোল হাছান, আইন কমিশনের প্রধান গবেষণা কর্মকর্তা ফওজুল আজিম, কেয়ার বাংলাদেশের পরিচালক হুমায়রা আজিজ প্রমুখ।