একাদশ জাতীয় নির্বাচনের ফল প্রত্যাশিত হাসানুল হক ইনু

প্রকাশ: ০৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৯      

সমকাল প্রতিবেদক

জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জাসদ) সভাপতি হাসানুল হক ইনু এমপি বলেছেন, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ফল জনগণের কাছে প্রত্যাশিত ছিল। জনগণ শান্তি, স্থিতিশীলতা ও উন্নয়নের পক্ষে গণরায় দিয়েছে। দেশ-বিদেশের সব মহল নির্বাচনের ফল গ্রহণ করেছে। মীমাংসিত এই ফলকে যারা অমীমাংসিত করতে চাচ্ছে, তারা ষড়যন্ত্র-চক্রান্ত, অশান্তি ও অস্থিতিশীলতার রাজনীতির বীজ নতুন করে বপন করছে।

গতকাল শুক্রবার রাজধানীর বঙ্গবন্ধু এভিনিউর শহীদ কর্নেল তাহের মিলনায়তনে জাসদের দু'দিনব্যাপী জাতীয় কমিটির সভায় শুরুতে প্রারম্ভিক বক্তব্যে হাসানুল ইনু এসব কথা বলেন। নির্বাচন-পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন নতুন সরকারের প্রতি পূর্ণ সমর্থন জানিয়ে তিনি বলেন, নির্বাচন ও রাজনীতির মাঠে পরাজিত জামায়াত-বিএনপি-ঐক্যফ্রন্ট তথা পাকিস্তানপন্থিরা কোনো ফাঁকফোকর দিয়ে পুনরুত্থানের সুযোগ যেন না পায়, সেজন্য সরকার, ১৪ দল ও সব দেশপ্রেমিক গণতান্ত্রিক শক্তিকে সতর্ক, সজাগ ও ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে।

তথ্য মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ইনু বলেন,

১৪ দল নিয়ে জোটের কোনো শরিক দলের বিভ্রান্তি কিংবা ভিন্ন বক্তব্য থাকলে সেই দলকেই তাদের অবস্থান সুনির্দিষ্টভাবে প্রকাশ করতে হবে। জাসদ ১৪ দল ঘোষিত ২৩ দফার ভিত্তিতে জোটকে এগিয়ে নিতে বদ্ধপরিকর। তবে ফরমায়েশি বিরোধী দল গঠন নয়, বরং সংসদ সদস্যদের স্বাধীন ও প্রাণবন্ত ভূমিকাই সংসদকে কার্যকর করবে।

তিনি বলেন, ৩০ ডিসেম্বরের নির্বাচনের মধ্য দিয়ে জামায়াত-বিএনপির দেশবিরোধী রাজনীতি জনগণের কাছে প্রত্যাখ্যাত হয়েছে। আর জামায়াতকে রেখে বিএনপি কখনোই গণতন্ত্রের ময়ূর কিংবা গণতন্ত্রের চ্যাম্পিয়ন হতে পারবে না। বরং জঙ্গিবাদ-সাম্প্রদায়িকতার 'ভাগাড়ের কাক'ই হয়ে থাকবে।

হাসানুল হক ইনুর সভাপতিত্বে প্রথম দিনের সভায় আরও বক্তব্য দেন দলের সাধারণ সম্পাদক শিরীন আখতার এমপি, কার্যকরী সভাপতি অ্যাডভোকেট রবিউল আলম, অধ্যাপক ড. আনোয়ার হোসেন, মীর হোসাইন আখতার, আবদুল হাই তালুকদার, অ্যাডভোকেট হাবিবুর রহমান শওকত, ফজলুর রহমান বাবুল, নুরুল আখতার, নাদের চৌধুরী, সাখাওয়াত হোসেন রাঙ্গা, মজিবুল হক বকু, ওবায়দুর রহমান চুন্নু, নইমুল আহসান জুয়েল, শওকত রায়হান, রোকনুজ্জামান রোকন প্রমুখ।

সভায় জাসদের কেন্দ্রীয় কার্যকরী কমিটির নেতারা ছাড়াও দলের সব জেলা কমিটির সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক ও উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্যরা অংশ নিচ্ছেন। আজ শনিবার দু'দিনব্যাপী এই সভা শেষ হবে।