কুমিল্লা-সিলেট মহাসড়ক

সংস্কার বন্ধ ৫ মাস যাত্রীদের ভোগান্তি

প্রকাশ: ০৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৯      

বুড়িচং (কুমিল্লা) প্রতিনিধি

কুমিল্লা-সিলেট মহাসড়কের বুড়িচং উপজেলার একাধিক স্থানে সংস্কার কাজ দীর্ঘ সময় ধরে অসমাপ্ত পড়ে আছে। এতে প্রতিদিন হাজার হাজার যানবাহনের যাত্রী ও চালকদের চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। প্রায়ই বিকল হচ্ছে যানবাহন। এ অবস্থায় মহাসড়কের সংস্কার কাজ দ্রুত শেষ করার দাবি জানিয়েছেন যানচালক ও যাত্রীরা।

দেশের অন্যতম ব্যস্ততম কুমিল্লা-সিলেট মহাসড়ক। প্রতিদিন চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, বান্দরবান, রাঙামাটি, নোয়াখালী, চাঁদপুর, কুমিল্লা থেকে অসংখ্য বাসসহ বিভিন্ন যানবাহনে হাজার হাজার মানুষ যাতায়াত করছে সিলেট, হবিগঞ্জ, সুনামগঞ্জ, ময়মনসিংহ, কিশোরগঞ্জ, নেত্রকোনাসহ বিভিন্ন জেলায়। একইভাবে উল্লেখিত জেলা বা স্থান থেকে প্রতিদিন প্রাইভেটকার, মাইক্রোবাসে শত শত মানুষ যাতায়াত করছেন বৃহত্তর চট্টগ্রাম, কক্সবাজারসহ দেশের দক্ষিণ-পূর্ব জেলাগুলোয়। এই সড়ক পথে সিলেট থেকে শত শত পাথরবাহী ট্রাক আসছে কুমিল্লাসহ বিভিন্ন জেলা ও ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যে। কুমিল্লার বাখরাবাদ, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার তিতাসসহ সিলেটের বিভিন্ন গ্যাস ও তেল ক্ষেত্র খননের কাজে ব্যবহূত যন্ত্রপাতি, বিশাল আকারের পাইপ বিদেশ থেকে চট্টগ্রাম বন্দর হয়ে এই সড়ক পথেই গন্তব্যে পৌঁছে। তবে ভালো নেই ব্যস্ততম এ সড়কটির বিভিন্ন স্থান।

সরেজমিনে দেখা গেছে, মহাসড়কের

কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলার ময়নামতি ওয়ার সিমেট্রি সংলগ্ন ফরিজপুর, হরিণধরা বিদ্যুৎ অফিস সংলগ্ন, কংশনগর এলাকায় প্রায় ৩০০ মিটার স্থানে বড় বড় খানাখন্দ সৃষ্টি হওয়ায় গত বর্ষা মৌসুম শেষে কুমিল্লা সড়ক ও জনপথ বিভাগ সংস্কারে হাত দেয়। তবে রাস্তার কার্পেটিং তুলে সংস্কার শুরু হলেও

অজ্ঞাত কারণে পাঁচ মাসেরও বেশি সময় ধরে তা অসমাপ্ত অবস্থায় পড়ে আছে। ঠিকাদারের লোকজন দু-তিন দিন পর পর পানি ছিটিয়ে ধুলাবালু থেকে পথচারী ও যানবাহনের লোকজনকে রক্ষার চেষ্টা করছেন। ময়নামতি এলাকার একাধিক ব্যক্তি জানান, কখনও এত দীর্ঘ সময় কাজ অসমাপ্ত রেখে দিতে দেখিনি।

দীর্ঘদিনেও সংস্কার কাজ শেষ না হওয়া প্রসঙ্গে জানতে চাইলে কুমিল্লা সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী ড. আহাদুল্লাহ বলেন, টেন্ডার কাজ শেষে বরাদ্দ পাওয়া গেছে। শিগগিরই সড়কের কাজ শুরু হবে।