জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের আলোচনা একাত্তরের মার্চেই বাঙালি জাতিসত্তার উত্থান ঘটে

প্রকাশ: ১৪ মার্চ ২০১৯

একাত্তরের মার্চ মাসেই বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে স্বাধীন বাঙালি জাতির বিপ্লবী উত্থান ঘটে। অগ্নিঝরা মার্চ ছিল বাঙালি জাতির অভ্যুদয়ের মাস। এর ভিত্তি রচিত হয় বাঙালির হাজার বছরের মুক্তির আকাঙ্ক্ষা, আন্দোলন, সংগ্রাম ও স্বপ্নের মধ্যে। গত মঙ্গলবার বিকেলে বাংলা একাডেমিতে এক আলোচনা সভায় বক্তারা এসব কথা বলেন। একাডেমির আবদুল করিম সাহিত্যবিশারদ মিলনায়তনে 'অগ্নিঝরা মার্চ ও বাঙালি জাতিসত্তার উত্থান' শীর্ষক আলোচনা সভা এবং আন্তঃকলেজ সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ড. হারুন-অর-রশিদ। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক। এ সময় তিনি বলেন, মার্চ মাস বাঙালি জাতিসত্তার উত্থানের মাস। মার্চের ঘটনাপ্রবাহ মুক্তিযুদ্ধে রূপ নিয়ে স্বাধীন বাংলাদেশ সৃষ্টি করে।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেন, '৭১-এর অগ্নিঝরা মার্চ ছিল স্বাধীন বাঙালি জাতির অভ্যুদয়ের মাস।

সভাপতির বক্তৃতায় উপাচার্য ড. হারুন-অর-রশিদ বলেন, মার্চ মাসেই বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে স্বাধীন বাঙালি জাতির বিপ্লবের উত্থান ঘটে। এর ভিত্তি রচিত হয় বাঙালির হাজার বছরের জাতীয় মুক্তির আকাঙ্ক্ষা, আন্দোলন, সংগ্রাম ও স্বপ্নের মধ্যে।

অনুষ্ঠানে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য ড. মশিউর রহমান স্বাগত বক্তব্য দেন। অন্যদের মধ্যে বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক কবি হাবীবুল্লাহ সিরাজী, নাট্যজন ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব রামেন্দু মজুমদার। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি।