ডাকসু পুনর্নির্বাচন দাবি

আমরণ অনশনে এবার রোকেয়া হলের পাঁচ ছাত্রী

প্রকাশ: ১৪ মার্চ ২০১৯     আপডেট: ১৪ মার্চ ২০১৯

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক

আমরণ অনশনে এবার রোকেয়া হলের পাঁচ ছাত্রী

ডাকসু পুনর্নির্বাচনের দাবিতে রাজু ভাস্কর্যের সামনে মঙ্গলবার থেকে আমরণ অনশনে বসেন চার প্রার্থীসহ শিক্ষার্থীরা (ওপরে); রোকেয়া হলের সামনে চার দফা দাবিতে বুধবার রাত থেকে অনশনে বসেন পাঁচ ছাত্রী - সমকাল

কারচুপির অভিযোগে ফল বাতিল করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রোকেয়া হল সংসদে পুনর্নির্বাচন এবং প্রভোস্টের পদত্যাগসহ চার দাবিতে আমরণ অনশনে বসেছেন পাঁচ ছাত্রী। গতকাল বুধবার রাত ৯টার দিকে হলের মূল ফটকে অবস্থান নিয়ে অনশন শুরু করেন তারা। অনশনকারী শিক্ষার্থীরা হলেন- রাফিয়া সুলতানা, শ্রবণা শফিক দীপ্তি, প্রমী খিসা, শেখ সায়িদা আফরিন শাফি ও জয়ন্তী রায়না।

তাদের অন্যান্য দাবির মধ্যে রয়েছে- অজ্ঞাতনামা আসামিদের বিরুদ্ধে প্রভোস্টের দায়ের করা মামলা প্রত্যাহার এবং শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা। ডাকসু নির্বাচনের দিন প্রভোস্ট জিনাত হুদাকে লাঞ্ছিত এবং রোকেয়া হলে ভাংচুরের অভিযোগে সাত প্রার্থী এবং অজ্ঞাতনামা ৪০ জনকে আসামি করে মামলা করা হয়।

এর প্রতিবাদে এবং পুনর্নির্বাচনের দাবিতে মঙ্গলবার রাত থেকে বিক্ষোভ শুরু করেন হলের ছাত্রীরা। গতকাল সকাল ৮টার দিকে কয়েক ঘণ্টার জন্য কর্মসূচি বন্ধ থাকলেও বেলা ৩টার দিকে হলের মূল ফটকের সামনে অবস্থান নিয়ে ফের বিক্ষোভ শুরু করেন ছাত্রীরা। তারা জানান, এখনও তাদের সঙ্গে প্রভোস্ট যোগাযোগ করেননি। তার ফোনে কল দেওয়া হলেও তিনি রিসিভ করেননি।

দিনভর বিক্ষোভ কর্মসূচি পালনের পর রাতে আমরণ অনশনের ঘোষণা দেন পাঁচ ছাত্রী। তাদের মধ্যে একজন সায়িদা আফরিন শাফি বলেন, দাবি মানা না পর্যন্ত তারা এখানে অবস্থান করবেন। এ সময় প্রায় পঞ্চাশজন শিক্ষার্থী অনশনকারীদের দাবির প্রতি সমর্থন জানিয়ে স্লোগান দেন।

এদিকে, রোকেয়া হলের ছাত্রীদের দাবির প্রতি পূর্ণ সমর্থন জানিয়েছেন মেয়েদের অন্য তিনটি হলে স্বতন্ত্র প্যানেল থেকে নির্বাচিত প্রতিনিধিরা। গতকাল বুধবার বিকেলে টিএসসিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতি কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তারা নিজেদের এ অবস্থান জানান। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন শামসুন নাহার হলের নবনির্বাচিত জিএস আফসানা ছপা। তিনি বলেন, রোকেয়া হলে উদ্ভূত পরিস্থিতি নিয়ে তারা খুবই শঙ্কিত ও উদ্বিগ্ন। এরই মধ্যে ৪০ জনের নামে মামলা হয়েছে এবং হল সংসদ নির্বাচন বাতিলের দাবিতে আন্দোলনরতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার হুমকি দেওয়া হয়েছে। এর তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জানিয়ে স্বতন্ত্র প্যানেলের প্রার্থীরা রোকেয়া হলের মেয়েদের দাবির প্রতি একাত্মতা প্রকাশ করেন।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে কবি সুফিয়া কামাল হল সংসদের নবনির্বাচিত জিএস মনীরা শারমিন বলেন, তাদের হলে সুষ্ঠু ভোট হয়েছে। যেসব হলে কারচুপি হয়েছে, সেখানে পুনর্নির্বাচন চান তারা।

সংবাদ সম্মেলনে সুফিয়া কামাল হল সংসদের নবনির্বাচিত ভিপি তানজীনা আক্তার সোমা, শামসুন নাহার হলের ভিপি তাসনীম আফরোজ ইমি উপস্থিত ছিলেন।