বঙ্গবন্ধু প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় 'ভুল ইনজেকশনে' সংকটাপন্ন শিক্ষার্থীকে ঢামেকে ভর্তি

প্রকাশ: ২৩ মে ২০১৯      

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি

নার্সের 'ভুল ইনজেকশনে' সংকটাপন্ন গোপালগঞ্জ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী মরিয়ম সুলতানা মুন্নীকে ঢাকার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এর আগে তাকে খুলনার শহিদ শেখ আবু নাসের বিশেষায়িত হাসপাতালে প্রায় ৩০ ঘণ্টা নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) রাখা হয়। সেখানে অবস্থার কোনো উন্নতি না হওয়ায় গতকাল বুধবার বিকেলে এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

মুন্নী বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজবিজ্ঞান বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী। তার বাবা মোশারফ হোসেন বলেন, মেয়ে পিত্তথলিতে পাথরজনিত সমস্যা নিয়ে গত সোমবার গোপালগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি হয়। পরদিন তাকে অস্ত্রোপচার করার করার কথা ছিল। হাসপাতালের নার্স শাহনাজ পারভিন গ্যাসের ইনজেকশনের বদলে মেয়ের শরীরে অজ্ঞান করার ইনজেকশন পুশ করেন। সঙ্গে সঙ্গে সে জ্ঞান হারায়। পরে হাসপাতালের চিকিৎসকরা বোর্ড গঠন করে তাকে খুলনা আবু নাসের বিশেষায়িত হাসপাতালে নিয়ে যেতে বলেন।

তিনি আরও বলেন, জ্ঞান হারানোর ৩৩ ঘণ্টা পার হলেও মুন্নীর জ্ঞান ফেরেনি। তার অবস্থার কোনো উন্নতি না হওয়ায় চিকিৎসকরা তাকে ঢাকায় নেওয়ার পরামর্শ দেন। এ ব্যাপারে ওই শিক্ষার্থীর চাচা জাকির হোসেন বিশ্বাস গোপালগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালের দুই নার্স ও এক চিকিৎসকের বিরুদ্ধে সদর থানায় মঙ্গলবার রাতে অভিযোগ দিয়েছেন।

গোপালগঞ্জ সদর থানার এসআই ও মামলার তদন্ত কর্মকর্তা মুকুল হোসেন সারদার জানান, গতকাল অভিযোগটি মামলা হিসেবে রেকর্ড করা হয়েছে।