বগুড়া বিএনপি

পদবঞ্চিতদের সমঝোতার প্রস্তাব আহ্বায়ক কমিটির

প্রকাশ: ২৩ মে ২০১৯      

বগুড়া ব্যুরো

বগুড়ায় আন্দোলনরত পদবঞ্চিত নেতাকর্মীদের সমঝোতার প্রস্তাব দিয়েছেন জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির নেতারা। কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক ফজলুল বারী তালুকদারের নেতৃত্বে কয়েক সদস্য গতকাল বুধবার শহরের নওয়াববাড়ি সড়কে তালাবদ্ধ দলীয় কার্যালয়ের সামনে বিক্ষোভরত নেতাকর্মীদের সঙ্গে দেখা করে ওই প্রস্তাব দেন।

তবে পদবঞ্চিত নেতাকর্মীরা জানিয়েছেন, আহ্বায়ক কমিটি বাতিল এবং পদ-পদবি স্থগিত ও বহিস্কার করা নেতাকর্মীদের স্বপদে বহাল

করা ছাড়া তারা কোনো সমঝোতায় যাবেন না।

বিকেল ৩টার দিকে আহ্বায়ক কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক ফজলুল বারী তালুকদার বেলাল, সদস্য রেজাউল করিম বাদশা ও আলী আজগর হেনার নেতৃত্বে কয়েক সদস্য গিয়ে সমঝোতার প্রস্তাব দিলে আন্দোলরতরা সিরাজের নেতৃত্বাধীন আহ্বায়ক কমিটি বাতিল এবং পদবি স্থগিত এবং বহিস্কৃত ১৬ নেতাকর্মীকে স্বপদে ফিরিয়ে নেওয়ার দাবি জানান। পরে আহ্বায়ক কমিটির সদস্য আলী আজগর হেনা আন্দোলনরত নেতাকর্মীদের তাদের দাবি-দাওয়া নিয়ে রাত ১০টায় স্থানীয় একটি কমিউনিটি সেন্টারে আলোচনায় বসারও প্রস্তাব দেন।

বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে আহ্বায়ক কমিটির নেতৃবৃন্দ চলে যাওয়ার পর দলীয় কার্যালয়ের সামনের রাস্তায় দাঁড়িয়ে সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন বিএনপি থেকে অব্যাহতিপ্রাপ্ত দেলোয়ার পশারী হিরু। সংবাদ সম্মেলনে বিএনপি, ছাত্রদল, যুবদল ও স্বেচ্ছাসেবক দলের ১৬ নেতার বিরুদ্ধে সাংগঠনিক শাস্তি প্রত্যাহারের দাবি জানানো হয়।

সমঝোতার প্রস্তাবের ব্যাপারে জানতে চাইলে আহ্বায়ক কমিটির সদস্য আলী আজগর হেনা বলেন, যারা আজ বিক্ষোভ করছে তারা আমাদের দলেরই নেতাকর্মী। হাইকমান্ড আমাদের তাদের সঙ্গে কথা বলতে বলেছে। তারা কী চায় সেটি শুনতে বলেছে। সে জন্য আমরা তাদের আজ রাতে আমাদের সঙ্গে আলোচনায় বসার প্রস্তাব দিয়েছি। তারা গ্রহণও করেছেন। আশাকরি আর কোনো সমস্যা থাকবে না।

তবে আন্দোলনরত নেতাকর্মীদের পক্ষের অন্যতম নেতা জেলা বিএনপি থেকে পদবি স্থগিত রাখা নেতা পরিমল কুমার দাস বলেন, 'আমাদের আলোচনায় বসার প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে। তবে আমরা বলেছি, দাবি আদায় না হলে বসে লাভ হবে না।'