মানি লন্ডারিং আইনে সিআইডির মামলা

এটিএম বুথে জালিয়াতি

প্রকাশ: ১১ জুন ২০১৯      

সমকাল প্রতিবেদক

রাজধানীর বাড্ডা থেকে ডাচ্‌-বাংলা ব্যাংকের এটিএম বুথ থেকে জালিয়াতি করে টাকা হাতিয়ে নেওয়ার ঘটনায় বিদেশি চক্রের সাত সদস্যের বিরুদ্ধে মামলা করেছে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ-সিআইডি। গতকাল সোমবার বাড্ডা থানায় মানি লন্ডারিং আইনে ওই মামলা করা হয়।

পুলিশ জানায়, সিআইডির করা মামলায় ইউক্রেনের নাগরিক ওলেগ, ভ্যালেনটাইন, নাজেরি, ডেনিস, ভোলোবিহাইন, সারগি ও ভিটালিকে আসামি করা হয়েছে। তাদের মধ্যে একজন গত ২ জুন খিলগাঁওয়ের একটি এটিএম বুথে জালিয়াতি করে টাকা তোলার সময় জনতা হাতেনাতে ধরে ফেলে। পরে পুলিশ তাকে আটক করলে জিজ্ঞাসাবাদের ভিত্তিতে পান্থপথের একটি আবাসিক হোটেল থেকে আরও পাঁচজনকে আটক করা হয়। ভিটালি নামে চক্রের একজন সদস্য আগেই পালিয়ে যায়। তাকে মানি লন্ডারিং প্রতিরোধ আইনের মামলায় আসামি করা হয়েছে।

ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) একজন কর্মকর্তা জানান, চক্রের ৬ সদস্যকে গ্রেফতারের পর ডাচ্‌-বাংলা ব্যাংক কর্তৃপক্ষ খিলগাঁও থানায় একটি মামলা করে। ওই মামলাটি ডিবি তদন্ত করছে। এরই মধ্যে এটিএম বুথে জালিয়াতির ভয়াবহ তথ্য বেরিয়ে এসেছে।

খিলগাঁও থানায় মামলার তদন্ত তদারকি কর্মকর্তা ডিবি পূর্ব বিভাগের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার শাহিদুর রহমান বলেন, তারা তদন্ত শুরু করেছেন। গ্রেফতার চক্রটি ছাড়াও আরও কয়েকটি চক্রের সন্ধান পাওয়া গেছে। ডিজিটাল জালিয়াতির এই চক্রের অন্যান্য সদস্যদের শনাক্ত করার চেষ্টা চলছে।

ডিবির তদন্ত সংশ্নিষ্ট সূত্র জানায়, এটিএম বুথ থেকে টাকা তুলে নেওয়ার এ প্রক্রিয়াটি একেবারেই প্রযুক্তিনির্ভর। ঠিক কী প্রযুক্তি ব্যবহার করে জালিয়াত চক্রের সদস্যরা অর্থ হাতিয়ে নিয়েছে, তা জানতে প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে গতকাল সোমবার ডিবি কর্মকর্তারা বৈঠক করেছেন। ওই বৈঠকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার সায়েন্স ও তথ্য প্রযুক্তি বিভাগের শিক্ষক, বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) কম্পিউটার সায়েন্স বিভাগের শিক্ষক, বাংলাদেশ কম্পিউটার সমিতির সদস্য, বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞ এবং ডাচ্‌-বাংলা ব্যাংকের প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞরা উপস্থিত ছিলেন।