ঈদযাত্রায় মৃত্যু নিয়ে ভিন্ন তথ্য দুই সংগঠনের

প্রকাশ: ১৩ জুন ২০১৯      

সমকাল প্রতিবেদক

গত ঈদযাত্রায় দেশের বিভিন্ন স্থানে সড়ক দুর্ঘটনা নিয়ে আলাদা প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে দুটি সংগঠন। তবে দুই প্রতিবেদনে হতাহতের সংখ্যায় ভিন্ন তথ্য রয়েছে। 'নিরাপদ সড়ক চাই (নিসচা)' ও 'যাত্রী অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ' নামে সংগঠন দুটি এসব তথ্য দিয়েছে। নিসচার দাবি, এবার মোট ১৮৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। আর যাত্রী অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ জানিয়েছে, মৃতের সংখ্যা মোট ২২১। তবে উভয় প্রতিবেদনেই বলা হয়েছে, এবারের ঈদযাত্রায় হতাহতের সংখ্যা আগের চেয়ে কম। মহাসড়কে দুর্ভোগও এবার কম ছিল।

গতকাল বুধবার বিজ্ঞপ্তি আকারে নিজেদের প্রতিবেদন প্রকাশ করে চিত্রনায়ক ইলিয়াস কাঞ্চনের নেতৃত্বাধীন নিসচা। সংগঠনের যুগ্ম মহাসচিব লিটন এরশাদ সমকালকে জানান, ২৯ মে থেকে ৮ জুন পর্যন্ত ১১ দিনের সড়ক দুর্ঘটনায় হতাহতের তথ্য তুলে ধরা হয়েছে তাদের প্রতিবেদনে। জাতীয় দৈনিক, অনলাইন নিউজ পোর্টাল ও টেলিভিশনের তথ্যের ভিত্তিতে এ প্রতিবেদন প্রণয়ন করা হয়েছে। সে হিসাবে, ১২৭টি দুর্ঘটনায় ১৮৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। আহত হয়েছেন ৩৩২ জন।

নিসচার প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ঈদযাত্রায় সবচেয়ে বেশি দুর্ঘটনায় পড়েছে মোটরসাইকেল। ৪৫টি দুর্ঘটনার কবলে পড়েছে মোটরসাইকেল। এতে ৩৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। দুর্ঘটনায় পড়েছে ৪৪টি বাস। ঈদের সময় মহাসড়কে

পণ্যবাহী যান চলাচল বন্ধ থাকার কথা থাকলেও ১৯টি ট্রাক ও কাভার্ড ভ্যান দুর্ঘটনার শিকার হয়েছে। অবৈধ নছিমনের কারণে দুর্ঘটনা ঘটেছে তিনটি।

এদিকে একই দিন জাতীয় প্রেস ক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে প্রতিবেদন প্রকাশ করে যাত্রী অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ। সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক সামসুদ্দিন চৌধুরী জানান, ৩০ মে থেকে ১০ জুন পর্যন্ত ১২ দিনের দুর্ঘটনার হতাহতের তথ্য তুলে ধরা হয়েছে তাদের প্রতিবেদনে। তাদের হিসাবে, ঈদযাত্রায় নিহত হয়েছেন ২২১ আর আহত হয়েছেন ৬৫২ জন। তাদের মধ্যে পঙ্গু হয়েছেন ৩৭৫ জন। সংগঠনটির প্রতিবেদনে বলা হয়, এবার ঈদযাত্রায় ট্রেনে নিহত হয়েছেন ১৩ জন। পাঁচটি নৌ দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছেন ৪ জন।