সঙ্গীতশিল্পী মিলার সাবেক স্বামী বৈমানিক এসএম পারভেজ সানজারীকের ওপর এসিড নিক্ষেপের অভিযোগ উঠেছে। গতকাল রোববার রাতে রাজধানীর উত্তরায় মিলার সহকারী জন পিটার হালদার কিম তার ওপর এসিড নিক্ষেপ করেছেন বলে অভিযোগ পারভেজের। ঘটনার পর ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাও নেন তিনি। তবে পুলিশ বলছে, এসিড নিক্ষেপ কি-না তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি। তার শরীরে তেমন ক্ষত বা দগ্ধের চিহ্ন পাওয়া যায়নি। ২০১৭ সালের মে মাসে মিলা পারভেজ

বিয়ে করেন। কয়েক মাস না যেতেই তাদের সম্পর্কের মধ্যে ফাটল ধরে। একপর্যায়ে তাদের ডিভোর্স হয়ে যায়। পারভেজের বিরুদ্ধে নারী ওর্ শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলাও করেন মিলা। এসব নিয়ে তাদের মধ্যে দ্বন্দ্ব চলে আসছে দীর্ঘদিন ধরে। এসিড নিক্ষেপের ঘটনায় মিলা জড়িত থাকতে পারেন বলে ধারণা করছেন পারভেজ।

পারভেজ উত্তরার ৩ নম্বর সেক্টরের ৭ নম্বর সড়কের ৩১ নম্বর বাড়িতে বসবাস করেন। ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা নেওয়ার সময় পারভেজ সাংবাদিকদের জানান, গতকাল রাত ৮টার দিকে তিনি বাসা থেকে মোটরসাইকেল নিয়ে বের হন। কিছুক্ষণ যাওয়ার পরই তার সাবেক স্ত্রী মিলার সহকারী জন পিটার হালদার কিম তাকে মোটরসাইকেল থামানোর সংকেত দেন। তিনি মোটরসাইকেল থামানো মাত্র পিটার এসিড ছুড়ে পালিয়ে যান। পারভেজের অভিযোগ, মিলার সঙ্গে তার বিবাহ বিচ্ছেদ হওয়ার পর বিভিন্ন সময় তাকে হুমকি দেন মিলা। তার ধারণা, এ এসিড নিক্ষেপের ঘটনায় মিলা জড়িত থাকতে পারেন।

উত্তরা পশ্চিম থানার ওসি তপন চন্দ্র সাহা সমকালকে বলেন, পারভেজকে এসিড নিক্ষেপ করা হয়েছে বলে অভিযোগ পেয়েছেন তিনি। তবে এসিড নিক্ষেপে সাধারণত যে ধরনের ক্ষত বা দগ্ধ হয় তেমন চিহ্ন পারভেজের শরীরে নেই। এরপরও বিষয়টি খোঁজ-খবর নেওয়া হচ্ছে বলে জানান তিনি।







মন্তব্য করুন