জাতীয় ঈদগাহে প্রধান জামাত সকাল ৮টায়

প্রকাশ: ০৪ জুন ২০১৯      

সমকাল প্রতিবেদক

জাতীয় ঈদগাহে প্রধান জামাত সকাল ৮টায়

ঈদুল ফিতরের জামাত সামনে রেখে জাতীয় ঈদগাহে নেওয়া হয়েছে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা। সোমবার পুলিশের বিশেষায়িত দলের তল্লাশি - সমকাল

রাজধানীর জাতীয় ঈদগাহে ঈদুল ফিতরের প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত হবে সকাল ৮টায়। একই স্থানে দ্বিতীয় জামাত অনুষ্ঠিত হবে সকাল ৯টায়। তবে আবহাওয়া অনুকূলে না থাকলে বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদে সকাল সাড়ে ৮টায় ঈদের প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত হবে। প্রধান জামাতে রাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিরা ছাড়াও বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ নামাজ আদায় করবেন। এ জন্য বাড়তি নিরাপত্তার অংশ হিসেবে জাতীয় ঈদগাহ ময়দানে প্রবেশের সময় মুসল্লিদের তিন দফায় তল্লাশি করা হবে। জাতীয় ঈদগাহ ময়দানজুড়ে ইতিমধ্যে স্থাপন করা হয়েছে সিসিটিভি ক্যামেরা। মুসল্লিরা সঙ্গে জায়নামাজ এবং প্রয়োজনে ছাতা নিয়ে ঈদগাহ ময়দানে ঢুকতে পারবেন। গতকাল সোমবার সকালে জাতীয় ঈদগাহ ময়দানের নিরাপত্তা কার্যক্রম পরিদর্শন শেষে ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি) কমিশনার এসব তথ্য জানান। পুলিশ কমিশনার বলেন, 'তিন স্তরে তল্লাশির পর একজন মুসল্লি ময়দানে ঢুকবেন। তাদের কাছে শুধু জায়নামাজ ও ছাতা থাকতে পারে। তবে প্রয়োজনে পুলিশ এগুলোও খুলে তল্লাশি করতে পারে। মুসল্লিদের সার্বিক নিরাপত্তার জন্যই এসব করা হবে।'

ঈদের জামাতের জন্য জাতীয় ঈদগাহ ময়দান সম্পূর্ণ প্রস্তুত জানিয়ে তিনি বলেন, ঈদ জামাত ঘিরে কয়েক স্তরের নিরাপত্তাব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। পোশাকধারী পুলিশ, সাদা পোশাকে ডিবি, সোয়াট, সিটিটিসি, বোম্ব ডিসপোজাল ইউনিট, আর্চওয়ে ও সিসিটিভি মনিটরিং- সব ব্যবস্থাই রয়েছে। এ ছাড়া পুলিশ কন্ট্রোল রুম ও ট্রিপল নাইনে ফোন দিয়েও জানানো যাবে।

ডিএমপি কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া বলেন, 'সুস্পষ্টভাবে নিরাপত্তার কোনো হুমকি নেই। তবে নিউজিল্যান্ড ও শ্রীলংকায় হামলার পর বৈশ্বিক প্রেক্ষাপটে নিরাপত্তা হুমকির যথেষ্ট কারণ রয়েছে। সব সময় একটি গোষ্ঠী ভীতি সঞ্চার করার জন্য তৎপর রয়েছে। এসব ঠেকাতে পুলিশও রাত-দিন কাজ করছে।'

পুলিশ কর্মকর্তারা জানান, ঈদ জামাতে প্রবেশে মানুষের চলাচল নির্বিঘ্ন করতে জিরো পয়েন্ট, সরকারি কর্মচারী হাসপাতাল মোড়, মৎস্য ভবন মোড় ও পল্টন মোড়ে ব্যারিকেড থাকবে। এসব রাস্তা দিয়ে ঈদগাহের দিকে হেঁটে আসতে হবে। কোনো গাড়ি চলাচল করতে পারবে না।

এদিকে জাতীয় ঈদগাহ ছাড়াও ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদে ঈদের প্রথম জামাত অনুষ্ঠিত হবে সকাল ৭টায়। আধা ঘণ্টা পরপর পাঁচটি ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হবে। সংসদ ভবনের দক্ষিণ প্লাজায় সকাল ৮টায় ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে। জাতীয় সংসদের চিফ হুইপ, হুইপ, মন্ত্রিপরিষদের সদস্য, সংসদ সদস্য ও সংসদ সচিবালয়ের কর্মচারীসহ স্থানীয় মুসল্লিরা ঈদ জামাতে অংশ নেবেন। এ ছাড়া রাজধানীর বিভিন্ন মসজিদ ও স্থানে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে।