নখের রোগ ও করণীয়

প্রকাশ: ০৯ জুন ২০১৯      

ডা. রাশেদ মোহাম্মদ খান, অধ্যাপক বিভাগীয় প্রধান, চর্মরোগ ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল

নখ মানবদেহের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গ। নখের নিজস্ব কিছু রোগ রয়েছে। আবার দেহের পদ্ধতিগত কিছু রোগের প্রভাবও নখের ওপর পড়ে। নখে অনাইকোমাইকোসিস নামে একটি প্রচলিত রোগ হয়। প্রথমে সাধারণত এর কোনো লক্ষণ থাকে না। তাই রোগী কোনো অভিযোগ করেন না। দেখা যায়, নখের রঙ বদলে যাচ্ছে। তখন নখ স্বাভাবিক থাকে না। নখের রঙ একটু হলুদাভ হয়ে যায়। নখ পুরু হয়ে যায়। পরবর্তী সময়ে যখন লক্ষণ প্রকাশ পায়, তখন রোগীর দৈনন্দিন কাজ ব্যাহত হয়। যেহেতু এটা ছত্রাকের কারণে হয়, তাই টিপিক্যাল অ্যান্টিফাঙ্গাল ব্যবহার করতে হবে। সেটি লোশন বা ক্রিম হতে পারে। পাশাপাশি মুখের অ্যান্টিফাঙ্গাল ওষুধ খেতে হয়।

এই  ওষুধ সাধারণত তিন মাস খেতে হয়। আক্রান্ত জায়গা বেশিক্ষণ ভেজা রাখা যাবে না। এমনকি খোঁটাখুঁটিও করা যাবে না। আরোগ্য লাভের জন্য প্রায় এক বছর পর্যন্ত ওষুধ সেবন করতে হতে পারে। ধৈর্য হারিয়ে মাঝপথে ওষুধ সেবন বন্ধ করবেন না। লিভার ফাংশন পরীক্ষা না করে এ ধরনের ওষুধ সেবন ঝুঁকিপূর্ণ। তবে চিকিৎসক পর্যবেক্ষণ করে উপযুক্ত মনে করলে ওষুধ দিতে পারবেন। তাই এই সমস্যায় আক্রান্ত হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের শরণাপন্ন হোন, চিকিৎসা নিন, ভালো থাকুন।