ঝিনাইদহ ও শরীয়তপুরে দুই গৃহবধূকে ধর্ষণের অভিযোগ

প্রকাশ: ০৯ জুলাই ২০১৯

ঝিনাইদহ ও শরীয়তপুর প্রতিনিধি

ঝিনাইদহ সদর ও শরীয়তপুরের ভেদরগঞ্জে দুই গৃহবধূকে ধর্ষণের অভিযোগে থানায় মামলা হয়েছে। শরীয়তপুরে মামলার একমাত্র আসামিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

ঝিনাইদহে ধর্ষণের শিকার গৃহবধূ জানান, গত শনিবার রাত ১০টার দিকে টিউবওয়েল থেকে পানি আনতে বাইরে বের হন তিনি। তখন মুসা মণ্ডল নামে এক ব্যক্তি তার মুখ চেপে ধরে নিয়ে যায়। এরপর কী হয়েছে তা বলতে

পারছেন না। পরের দিন সকালে তাদের বাড়ির কাছেই হাত-পা বাঁধা অবস্থায় তিনি পড়ে ছিলেন। মুসা মণ্ডল তাকে অচেতন করে ধর্ষণ করেছে বলে অভিযোগ করেন তিনি। মুসা মণ্ডল সদর উপজেলার বদনপুর গ্রামের আনিচ  মণ্ডলের ছেলে।

ঝিনাইদহ সদর থানার ওসি মিজানুর রহমান খান জানান, ভুক্তভোগী গৃহবধূকে রোববার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ বিষয়ে রোববার রাতেই গৃহবধূর বাবা মামলা করেছেন। এ নিয়ে তদন্ত শুরু হয়েছে।

এদিকে শরীয়তপুরের ভেদরগঞ্জ উপজেলার সখিপুরে ধর্ষণের অভিযোগে নিজের শ্বশুরের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন এক গৃহবধূ। পরে আসামি গিয়াস উদ্দিন ঢালীকে (৫৫) গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ভুক্তভোগী গৃহবধূ জানান, তার স্বামী ঢাকায় থাকেন। তিনি শ্বশুর-শাশুড়িসহ অন্যদের সঙ্গে একই ঘরে ঘুমান। গত ২৮ মে রাতে তার শ্বশুর গিয়াস উদ্দিন ঢালী মুখ চেপে ধরে হত্যার ভয় দেখিয়ে তাকে ধর্ষণ করে। এরপর থেকে গত ৬ জুলাই  পর্যন্ত বিভিন্ন সময় সে তাকে ধর্ষণ করে। কিন্তু জীবনের ভয়ে গৃহবধূ  কাউকে কিছু বলার সাহস পাননি। অবশেষে গত রোববার রাতে তিনি থানায় মামলা করেন।

সখিপুর থানার ওসি এনামুল হক বলেন, মামলার পর গিয়াস উদ্দিন ঢালীকে গ্রেফতার করা হয়েছে।