সংসদে রুমিন ফারহানা

বিচার বিভাগের স্বাধীনতা কেতাবি কথা

প্রকাশ: ০৯ জুলাই ২০১৯

সমকাল প্রতিবেদক

সরকারের নির্বাহী বিভাগ থেকে বিচার বিভাগ পৃথক্‌করণ কেতাবি কথা ছাড়া আর কিছুই নয় বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির সাংসদ রুমিন ফারহানা। তিনি বলেছেন, সংবিধানের ১১৫ ও ১১৬ অনুচ্ছেদের কারণে নিম্ন আদালত কার্যত এখনও সরকারের অধীনে রয়ে গেছে। তাই বাংলাদেশে 'সেপারেশন অব পাওয়ার' কেতাবি কথা ছাড়া আর কিছু নয়। গতকাল সোমবার সংসদের বৈঠকে জরুরি জনগুরুত্বসম্পন্ন বিষয়ে মনোযোগ আকর্ষণের বাতিল নোটিশের ওপর দুই মিনিটের সংক্ষিপ্ত আলোচনায় তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, রাষ্ট্রের তিন অঙ্গ যদি স্বাধীনভাবে কাজ করতে না পারে তবে তা রাষ্ট্রের জন্য সমূহ বিপদ ডেকে আনতে পারে।

সাবেক প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহার উদ্ধৃতি দিয়ে রুমিন ফারহানা বলেন, তিনি বলেছেন- দেশে আইনের শাসন নেই। সরকার নিম্ন আদালতকে কবজা করার পর হাত বাড়িয়েছে উচ্চ আদালতের দিকে। সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায়ের কারণে তাকে দেশত্যাগে বাধ্য করা হয়েছে। রুমিন ফারহানা বলেন, নিম্ন আদালতের যে বিচারক তারেক রহমানকে খালাস দিয়েছিলেন তাকে দেশত্যাগে বাধ্য করা হয়েছিল।

তার এই বক্তব্যের পর পয়েন্ট অব অর্ডারে দাঁড়িয়ে জাসদের মইনউদ্দীন খান বাদল বলেন, আদালতের রায়ে সাজা হওয়া কারও মুক্তির বিষয় জরুরি জনগুরুত্বপূর্ণ বিষয় হতে পারে না। সংসদের কার্যপ্রণালি বিধি মেনে সংসদ চলতে হবে।