দলের সব সিদ্ধান্ত খালেদা জিয়ার পরামর্শেই মির্জা ফখরুল

প্রকাশ: ১১ জুলাই ২০১৯

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার পরামর্শ নিয়েই দলের সব সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় বলে জানিয়েছেন মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট গঠন করেছেন তার পরামর্শ নিয়ে, একাদশ সংসদ নির্বাচনে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে তারই পরামর্শে। গতকাল বুধবার জাতীয় প্রেস ক্লাবে

প্রয়াত রাজনীতিক সাবেক মন্ত্রী মশিউর রহমান যাদু মিয়ার

৯৮তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, জামিন পাওয়াটা খালেদা জিয়ার আইনগত প্রাপ্যতা। সেই জামিনটা তারা দিচ্ছে না। সরকার জানে এই নেত্রী যদি বেরিয়ে আসেন, তাহলে তাদের ক্ষমতায় টিকে থাকা কঠিন হবে। তিনি বলেন, মানুষকে হতাশ হতে দেবেন না। হতাশার কথা বলবেন না। নিশ্চয়ই খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে

পারব। আর খালেদা জিয়ার মুক্তিতেই গণতন্ত্রের মুক্তি আসবে। এটাই হচ্ছে বাস্তবতা।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, যদি সবাই দেশকে ভালোবাসি, দেশকে সামনের দিকে এগিয়ে নিতে চাই, মানুষের মুক্তি দেখতে চাই, তাহলে অবশ্যই ঐক্যবদ্ধ হয়ে ক্ষমতাসীন সরকারকে পরাজিত করতে পারব। আসুন আজকে কোনো হতাশায় না পড়ে সামনের দিকে এগোই, বুকে সাহস নিয়ে এগোই, মেধা নিয়ে এগোই, বুদ্ধিমত্তার সঙ্গে এগোই।

মির্জা ফখরুল বলেন, পৃথিবীটা বদলে গেছে। ভারতে মহাত্মা গান্ধীকে যারা হত্যা করেছিল তারা এখন রাষ্ট্রক্ষমতায় এবং জনগণের ভোটে নির্বাচিত হয়েছে। এটাই বাস্তবতা। সেই পরিবর্তনটা অনুধাবন করতে হবে, বুঝতে হবে এবং পথ বের করতে হবে।

তিনি বলেন, রাষ্ট্রযন্ত্রের বিরুদ্ধে লড়াই করাটা সহজ কথা নয়। নির্বাচনের আগে ২০ দলীয় জোটের পাশাপাশি জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট গঠন করে পরাজিত করতে পারিনি। তার মানে এই নয় যে, শেষ হয়ে গেছি, মুখ থুবড়ে পড়ে গেছি।

মশিউর রহমান যাদু মিয়া স্মৃতি জাতীয় কমিটির আহ্বায়ক শামসুল হকের সভাপতিত্বে এবং আরিফুল হোসেন আরিফের পরিচালনায় সভায় ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, অধ্যাপক মাহবুবউল্লাহ, বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু, প্রয়াত নেতা মশিউর রহমান যাদু মিয়ার মেয়ে রিটা রহমান প্রমুখ বক্তব্য দেন।