রানী ম্যাক্সিমার সাক্ষাৎ বদ্বীপ পরিকল্পনা বাস্তবায়নে সহায়তা চাইলেন রাষ্ট্রপতি

প্রকাশ: ১২ জুলাই ২০১৯      

বাসস

রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ বাংলাদেশের বদ্বীপ পরিকল্পনা বাস্তবায়নে নেদারল্যান্ডসের সহযোগিতা চেয়েছেন। ডাচ্‌ রানী ম্যাক্সিমা জোরেগুয়েতা সেরুতি গতকাল বৃহস্পতিবার বঙ্গভবনে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে গেলে তিনি এ সহযোগিতা চান।

রাষ্ট্রপতি বলেন, বাংলাদেশ বদ্বীপ পরিকল্পনা-২১০০ বাস্তবায়নে নেদারল্যান্ডসের বিশেষায়িত দক্ষতা, বিশেষ করে নদীশাসনে তাদের অভিজ্ঞতা কাজে লাগাতে চায়। তিনি বলেন, বাংলাদেশ ও নেদারল্যান্ডসের মধ্যকার সম্পর্ক বর্তমানে খুবই চমৎকার এবং তিনি আশা করেন, এ সম্পর্ক ভবিষ্যতে আরও জোরদার হবে। রাষ্ট্রপতি বলেন,

মিয়ানমার থেকে আসা বিশাল রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠী বাংলাদেশের জন্য একটি বড় বোঝা। নিরাপদ ও মর্যাদার সঙ্গে তাদের নিজ বাসভূমিতে ফেরা নিশ্চিত করতে নেদারল্যান্ডসসহ আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের সহায়তা কামনা করেন তিনি।

রানী ম্যাক্সিমা বাংলাদেশের বর্তমান সরকারের বিভিন্ন কর্মকাণ্ডের, বিশেষ করে বাল্যবিয়ে রোধে গৃহীত পদক্ষেপের প্রশংসা করেন। তিনি সাম্প্রতিক সময়ে নারীর ক্ষমতায়ন এবং তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি খাতে বাংলাদেশের অনন্যসাধারণ উন্নয়নের প্রশংসা করেন।

রাষ্ট্রপতির প্রেস সচিব জয়নাল আবেদীন জানান, বাংলাদেশে নেদারল্যান্ডসের রাষ্ট্রদূত হেন্ড্রিকাস জি জে ও বাংলাদেশে জাতিসংঘের আবাসিক সমন্বয়ক মিয়া সেপ্পো সাক্ষাৎকালে রানীর সঙ্গে ছিলেন। রাষ্ট্রপতির সচিব সম্পদ বড়ূয়া, সামরিক সচিব মেজর জেনারেল এসএম শামীম-উজ-জামান এবং বঙ্গভবন ও পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।