প্রতিবন্ধী কিশোরীসহ ৪ জন ধর্ষিত

প্রকাশ: ১২ জুলাই ২০১৯      

সমকাল ডেস্ক

পিরোজপুরের নাজিরপুরে ধর্ষণের ভিডিও প্রকাশের হুমকি দিয়ে ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রীকে এক বছর ধরে ধর্ষণ করা হয়েছে। কুমিল্লার দাউদকান্দিতে ধর্ষণের শিকার হয়েছে প্রতিবন্ধী এক কিশোরী। বগুড়ার ধুনটে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে ধর্ষণ করা হয়েছে স্বামী পরিত্যক্ত এক নারীকে। এ ছাড়া দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে সালিশের নামে প্রতিবন্ধী শিশু ধর্ষণের ঘটনা ধামাচাপা দেওয়ার অপচেষ্টা করা হয়েছে। এ ঘটনায় দু'জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সমকাল প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর :

নাজিরপুর (পিরোজপুর) :উপজেলার শেখমাটিয়া ইউনিয়নের রঘুনাথপুরে বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণ করে ভিডিওচিত্র সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে এক বছর ধরে ধর্ষণের শিকার হয়েছে ষষ্ঠ শ্রেণির এক ছাত্রী। এ অভিযোগ উঠেছে সদ্য এসএসসি পাস করা রিফাত আল মামুন নামে এক ছাত্রের বিরুদ্ধে। ভিডিওটি ওই ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি মোয়াজ্জেম শিকদার তার ফেসবুক আইডিতে ছড়িয়ে দেন। এ ঘটনায় ছাত্রীর নানা প্রথমে ওই যুবলীগ নেতার বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে থানায় মামলা করেন। পুলিশ ওই মামলায় মোয়াজ্জেমকে গ্রেফতার করে। পরবর্তী সময়ে ওই ছাত্রীর মা বাদী হয়ে রিফাত আল মামুনসহ তার মা জেসমিন বেগম, খালা শাহনাজ বেগম ও মামা জাহাঙ্গীর খানকে আসামি করে ধর্ষণ ও সহায়তার অভিযোগে নাজিরপুর থানায় আরেকটি মামলা করেন। বুধবার ওই মামলার আসামি জাহাঙ্গীর খানকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

নাজিরপুর থানার ওসি মো. মনিরুল ইসলাম জানান, এ ঘটনায় আইসিটি ও ধর্ষণের দুটি মামলা নেওয়া হয়েছে। আসামি মোয়াজ্জেম ও জাহাঙ্গীর খানকে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। রিফাতকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

দাউদকান্দি (কুমিল্লা) :দাউদকান্দিতে এক প্রতিবন্ধী কিশোরী ধর্ষণের শিকার হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। বুধবার বিকেলে এ ধর্ষণের ঘটনা ঘটে। দাউদকান্দি মডেল থানায় মামলা

করেছেন ওই কিশোরীর মা। পুলিশ এ ঘটনায় আলমগীর হোসেন নামে এক যুবককে গ্রেফতার করেছে।

দাউদকান্দি মডেল থানার ওসি রফিকুল ইসলাম বলেন, আসামিকে গ্রেফতার করে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

ধুনট (বগুড়া) :বগুড়ার ধুনটে স্বামী পরিত্যক্ত এক নারীকে ধর্ষণের ঘটনায় ইকবাল হোসেন (৩০) নামে এক ব্যক্তিকে পুলিশ আটক করেছে। পুলিশ জানায়, দুই সন্তানের জনক ইকবাল দীর্ঘদিন ধরে ওই নারীকে প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে আসছিল। বিষয়টি তিনি ইকবালের পরিবারকে জানালে ক্ষিপ্ত ইকবাল ওই নারীর ঘরে ঢুকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে ধর্ষণ করে। এ ঘটনায় ধর্ষিতার মা বাদী হয়ে বুধবার রাতে ইকবাল হোসেন ও তার ভাই আল আমিন এবং আল মাহমুদকে আসামি করে ধুনট

থানায় মামলা করেন। ধুনট থানার ওসি ইসমাইল হোসেন জানান, ধর্ষণ মামলার প্রধান আসামিকে বৃহস্পতিবার গ্রেফতার করে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

দিনাজপুর :দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে চতুর্থ শ্রেণির (১১) এক প্রতিবন্ধী শিশু ধর্ষণের ঘটনা সালিশের নামে ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টার অভিযোগে মেহেদুল ইসলামসহ দুইজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। শিশুটির মা বাদী হয়ে গতকাল বৃহস্পতিবার ফুলবাড়ী থানায় মামলা করার পর তাদের গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতার মেহেদুল রামভদ্রপুর আবাসনের এবং তার সহযোগী সুজন রামভদ্রপুর গ্রামের বাসিন্দা। প্রতিবন্ধী শিশুটি গত ৩ জুলাই দুপুরে দোকান থেকে জুস কিনে বাড়ি ফেরার পথে মেহেদুল তাকে জঙ্গলে নিয়ে ধর্ষণ করে। ঘটনা জানাজানি হলে তা ধামাচাপা দেওয়ার জন্য সালিশ বৈঠকের নামে ১৪ হাজার টাকায় মীমাংসা করতে পরিবারটিকে বাধ্য করা হয়। অভিযুক্তকে ১৪ হাজার টাকা জরিমানা করা হলেও শিশুর বাবাকে দেওয়া হয় ৭ হাজার টাকা।

ফুলবাড়ী থানার ওসি ফকরুল ইসলাম জানান, ঘটনা জানার পরই ধর্ষককে গ্রেফতার করা হয়েছে। ধর্ষিতার স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।