বাংলাদেশি জাল মুদ্রা তৈরির পর এবার কোরবানি ঈদ সামনে রেখে ভারতীয় জাল রুপি তৈরি শুরু করেছিল একটি চক্র। গতকাল সোমবার রাজধানীর রামপুরার একটি বাসায় ডিবি পুলিশ অভিযান চালিয়ে চক্রের তিন সদস্যকে গ্রেফতার করে। তাদের কাছ থেকে ২১ লাখ জাল রুপি ও এসব তৈরির বিভিন্ন সরঞ্জাম জব্দ করা হয়েছে। সাদা চোখে যা দেখতে প্রায় আসল রুপির মতো। গ্রেফতার তিনজন হলো রফিকুল ইসলাম খসরু, আব্দুর রহিম ও জনি ডি কস্তা।

ডিবি পুলিশ জানায়, গত ৯ জুলাই রামপুরার উলন রোডের একটি বাসায় অভিযান চালিয়ে বাংলাদেশি জাল টাকা তৈরির একটি কারখানার সন্ধান পান তারা। সেখান থেকে ভারতীয় রুপি তৈরিতে ব্যবহূত বিশেষ ফয়েল পেপার পাওয়া যায়। এর সূত্র ধরে জাল রুপি তৈরির চক্রটিকে ধরার জন্য কার্যক্রম শুরু হয়। এরই ধারাবাহিকতায় গতকাল সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত রামপুরার পলাশবাগ মোড়ের একটি বাড়ির অষ্টম তলার ফ্ল্যাটে জাল রুপি তৈরির সন্ধান পান ডিবি-উত্তর বিভাগের সদস্যরা।

ওই অভিযানে থাকা ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) উত্তর বিভাগের ডিসি মশিউর রহমান জানান, কোরবানি ঈদ উপলক্ষে ভারত থেকে পোশাক ও কোরবানির গরু আমদানি করা হয়ে থাকে। চক্রটি জাল রুপি তৈরি করে সীমান্ত এলাকায় তা পাচারের চেষ্টা করছিল। গ্রেফতার তিনজন এর আগেও বিভিন্ন সময়ে গ্রেফতার হয়ে কারাভোগ করে। তারা জামিনে বেরিয়ে একই অপরাধ শুরু করে আবার। তাদের কাছ থেকে উদ্ধার করা ২১ লাখ রুপিই ৫০০ ও ২০০০ রুপির নোট।

ডিবি সূত্র জানায়, জাল রুপি তৈরির এই চক্রটির নেতৃত্বে রয়েছে রফিকুল ইসলাম খসরু। তৈরি করা এসব জাল রুপি সীমান্তবর্তী জেলা চাঁপাইনবাবগঞ্জ, যশোরসহ সীমান্ত এলাকার আগ্রহী অসাধু ব্যবসায়ীদের কাছে চাহিদা অনুযায়ী সরবরাহের দায়িত্বে ছিল সে।

মন্তব্য করুন