দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) মামলার আসামি পুলিশের বরখাস্ত ডিআইজি মো. মিজানুর রহমানকে জেলগেটে জিজ্ঞাসাবাদ করেছেন প্রতিষ্ঠানটির কর্মকর্তারা। গতকাল সোমবার ঢাকার অদূরে কেরানীগঞ্জে কেন্দ্রীয় কারাগারের গেটে তাকে দুদকের এক পরিচালকের সঙ্গে ঘুষ লেনদেনের ফোনালাপ নিয়ে জিজ্ঞাসা করা হয়।

গতকাল সকাল সাড়ে ১০টা থেকে দুপুর সোয়া ১টা পর্যন্ত অনুসন্ধান কর্মকর্তা দুদক পরিচালক শেখ মো. ফানাফিল্যাহ ও সহকারী পরিচালক মো. সালাহউদ্দিন বরখাস্ত ডিআইজি মিজানকে জিজ্ঞাসাবাদ করেন। এ সময় অনুসন্ধান তদারককারী কর্মকর্তা পরিচালক নিরু সামসুন্নাহারও ছিলেন।

মিজানের বিরুদ্ধে অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগ অনুসন্ধান করছিলেন দুদক পরিচালক খন্দকার এনামুল বাছির। অভিযোগ থেকে রেহাই পেতে বাছিরকে ৪০ লাখ টাকা ঘুষ দিয়েছিলেন মিজান।

ফোনালাপে ঘুষ লেনদেনের বিষয়ে মিজান ও বাছিরের বিরুদ্ধে মামলার প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে। এর আগে গত ২৪ জুন বরখাস্ত হওয়া ডিআইজি মিজান, তার স্ত্রীসহ চারজনের বিরুদ্ধে অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে মামলা করা হয়। এ মামলায় মিজান জেলে আছেন।

মন্তব্য করুন