শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, বাংলাদেশে প্রতি বছর ২২ লাখ লোক শ্রমবাজারে প্রবেশ করে। কর্মসংস্থানের জন্য যে পরিমাণ দক্ষতা দরকার, তা তাদের নেই। অনেক পরিশ্রম করলেও দক্ষতা না থাকায় বাংলাদেশের শ্রমিকরা বিদেশে যথাযথ মূল্যায়ন পাচ্ছেন না। এ জন্য সরকার দক্ষ জনশক্তি তৈরিতে বদ্ধপরিকর। ২০২১ সাল থেকে সব বিদ্যালয় ও মাদ্রাসায় কারিগরি শিক্ষা বাধ্যতামূলক করা হবে। কারণ দক্ষতা ব্যতীত কর্মক্ষেত্রে সাফল্য অর্জন সম্ভব নয়। গতকাল সোমবার বিশ্ব যুব দক্ষতা দিবস উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় শিক্ষামন্ত্রী এসব কথা বলেন। জাতীয় দক্ষতা উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (এনএসডিএ) উদ্যোগে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

দীপু মনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী ২০২৩ সালের মধ্যে দেড় কোটি তরুণের কর্মসংস্থানের লক্ষ্য নির্ধারণ করেছেন। এই প্রয়োজনীয়তার অনুভব থেকেই জনসংখ্যাকে জনশক্তিতে পরিণত করতে জাতীয় দক্ষতা উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ গঠন করা হয়েছে। দেশে সাধারণ বিদ্যালয়গুলোতেও কারিগরি শিক্ষা অন্তর্ভুক্ত হচ্ছে। আগামী বছর থেকে ৬৪০টি বিদ্যালয় কারিগরি শিক্ষার অন্তর্ভুক্ত হবে। ষষ্ঠ থেকে অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত একটি প্রাথমিক ধারণা দেওয়া হবে এবং নবম-দশম শ্রেণিতে একটি বিষয়ে প্রত্যেক ছাত্রছাত্রীর শিক্ষা গ্রহণ করতে হবে।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, কারিগরি শিক্ষা ষোলআনাই মর্যাদাকর। এর সামাজিক অবস্থান মোটেও অসম্মানজনক নয়। কর্মদক্ষ হিসেবে গড়ে তুলতে কারিগরি শিক্ষার ওপর জোর দিতে হবে। মানুষ তার স্বপ্নের সমান বড়- উল্লেখ করে তিনি বলেন, আত্মবিশ্বাস, দক্ষতা, বুদ্ধি, শ্রম থাকলে নিজের স্বপ্ন পূরণ সম্ভব। বঙ্গবন্ধু সোনার বাংলা উপহার দিয়েছেন। এখন তার কন্যা শেখ হাসিনা সোনার মানুষ তৈরির মাধ্যমে সমৃদ্ধ বাংলাদেশ নির্মাণে কাজ করছেন। এ জন্য দক্ষতার পাশাপাশি নৈতিক মূল্যবোধসম্পন্ন প্রজন্ম গড়ে তুলতে সবাইকে তৎপর হওয়ার আহ্বান জানান তিনি।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থানমন্ত্রী ইমরান আহমদ বলেন, সরকার দক্ষতা উন্নয়নের জন্য অনেক প্রশিক্ষণ কেন্দ্র চালু করেছে। এসব প্রতিষ্ঠান থেকে প্রশিক্ষিত হতে পারলে বিদেশে ভালো বেতনে কাজ করা যাবে।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সচিব সাজ্জাদুল হাসান। স্বাগত বক্তব্য দেন এনএসডিএর নির্বাহী চেয়ারম্যান ফারুক হোসেন। এর আগে যুব দক্ষতা দিবস উপলক্ষে জাতীয় সংসদের দক্ষিণ প্লাজা থেকে একটি র‌্যালি বের হয়। এতে নেতৃত্ব দেন শিক্ষামন্ত্রী।

মন্তব্য করুন