ডেঙ্গু রোগী বাড়ছেই আতঙ্কে নগরবাসী

প্রকাশ: ১৯ জুলাই ২০১৯

সমকাল প্রতিবেদক

রাজধানী ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন জেলায় মশাবাহিত ডেঙ্গু জ্বরের রোগী বাড়ছে। বুধবার সন্ধ্যা পর্যন্ত আগের ২৪ ঘণ্টায় ২০১ জন এ রোগে আক্রান্ত হয়েছে। এ নিয়ে গত জানুয়ারি থেকে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়াল পাঁচ হাজার ৫৪৬ জনে। সরকারি হিসাব বলছে, এ জ্বরে আক্রান্ত হয়ে এর মধ্যে পাঁচজন মারা গেছেন। তবে বেসরকারি হিসাবে মৃতের সংখ্যা আরও বেশি। কোনো কোনো সূত্র বলছে, মৃতের সংখ্যা ১২। রোগটি এভাবে ছড়িয়ে পড়ায় রাজধানীর বাসিন্দাদের মধ্যে এখন তীব্র আতঙ্ক বিরাজ করছে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশন্স সেন্টার ও কন্ট্রোল রুমের তথ্য অনুসারে, ২৪ ঘণ্টায় (বুধবার সন্ধ্যা পর্যন্ত) ঢাকা শহরে ডেঙ্গু আক্রান্ত নতুন রোগীর সংখ্যা ১৯৮ জন। এর বাইরে ঢাকা বিভাগে (ঢাকা শহর বাদে) দুই ও চট্টগ্রামে একজন ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়েছেন।

সরকারের তথ্যমতে, বর্তমানে এক হাজার ২০৭ জন রোগী সরকারি-বেসরকারি হাসপাতাল ও ক্লিনিকগুলোতে ভর্তি অবস্থায় চিকিৎসা নিচ্ছেন। এর মধ্যে বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন ৫০৪ জন। গত জানুয়ারি থেকে এ পর্যন্ত ডেঙ্গু রোগে চিকিৎসা নিয়ে ছাড়পত্র নিয়েছেন চার হাজার ৩৩৪ জন। এর মধ্যে বেসরকারি হাসপাতাল থেকে চিকিৎসা শেষে ছাড়পত্র নিয়েছেন দুই হাজার ৪৪৬ জন। সরকারি হিসেবে, গত ছয় মাসে পাঁচজন ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। তারা সবাই বেসরকারি হাসপাতাল ও ক্লিনিকে চিকিৎসাধীন ছিলেন। ধানমণ্ডির ইবনে সিনা হাসপাতালে একজন, স্কয়ার হাসপাতালে একজন, অ্যাপোলোতে একজন, বিআরবি হাসপাতালে একজন এবং আজগর আলী হাসপাতালে একজন করে রোগী ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন।

এদিকে রাজধানীর বাসিন্দাদের মধ্যে ডেঙ্গু নিয়ে তীব্র আতঙ্ক বিরাজ করছে। এডিস মশার আতঙ্কে ঘুম হারাম হয়ে গেছে রাজধানীবাসীর। সর্বশেষ ঢাকা শিশু হাসপাতালের আইসিইউতে থাকা ১২ বছরের এক শিশু মঙ্গলবার ডেঙ্গুতে মারা গেছে। এর আগে মারা যায় ভোক্তা অধিকারের এক কর্মকর্তার পাঁচ বছরের সন্তান। চিকিৎসকরা বলেছেন, অধিকাংশ ক্ষেত্রে দেরি করে হাসপাতালে আসাতেই ঘটছে এমন দুর্ঘটনা। সেজন্য সংশ্নিষ্টরা নগরবাসীকে সচেতন হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন।