ফেসবুকে ছেলেধরা গুজব ছড়ালে মামলা

প্রকাশ: ২৬ জুলাই ২০১৯      

সমকাল ডেস্ক

পদ্মা সেতুতে মানুষের মাথা লাগবে, এজন্য ছেলেধরা বা গলাকাটা ছড়িয়ে পড়েছে- ফেসবুক, টুইটার, ইউটিউবসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এমন গুজব ছড়ালে কিংবা কেউ তা শেয়ার করলে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করা হবে। গণপিটুনিতে নিরপরাধ কাউকে খুন করা হলে তাদেরও আইনের আওতায় আনা হবে। গতকাল বৃহস্পতিবার চট্টগ্রাম জেলা পুলিশের এক সচেতনতামূলক সংবাদ সম্মেলনে এমন হুঁশিয়ারি দেওয়া হয়। এ ছাড়া সারাদেশে পুলিশ ও প্রশাসনের পক্ষ থেকে সচেতনতামূলক নানা কর্মসূচি গতকালও অব্যাহত ছিল। এসব কর্মসূচিতে অপরিচিত বা সন্দেহজনক কাউকে দেখলে গণপিটুনি না দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করতে অথবা ৯৯৯ নম্বরে কল করে জানাতে বলা হয়। সমকালের ব্যুরো, অফিস, প্রতিনিধি ও সংবাদদাতাদের পাঠানো খবর :

চট্টগ্রাম :নগরীর দুই নম্বর গেট এলাকায় একটি কমিউনিটি সেন্টারে গতকাল বৃহস্পতিবার আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে জেলা পুলিশ সুপার নুরেআলম মিনা বলেন, পদ্মা সেতু প্রকল্পে মানুষের মাথা লাগবে এমন গুজব সর্বপ্রথম সংযুক্ত আরব আমিরাতের দুবাই থেকে কয়েকজন 'ভিন্ন রাজনৈতিক মতাদর্শী' প্রবাসী ছেলেধরা গুজব সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেয়। তারা পদ্মা সেতুতে মানুষের রক্ত লাগবে বলেও গুজব ছড়ায়। এ চক্রটি পদ্মা সেতু প্রজেক্টে দায়িত্বরত একজন কর্মকর্তা সেতু নির্মাণে অতিরিক্ত লোকবল লাগবে এমন সাক্ষাৎকার দিয়েছিলেন। সেটাকে বিকৃত করেই এ অপপ্রচার চালাচ্ছে। ছেলেধরার কোনো ঘটনা চট্টগ্রামসহ বাংলাদেশে ঘটেনি। এ ধরনের গুজব ছড়িয়ে সামাজিক বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির অপচেষ্টাকারীদের সমাজের সব নাগরিককে ঐক্যবদ্ধভাবে প্রতিহত করার আহ্বান জানিয়েছেন। যারা পরিকল্পিতভাবে এসব গুজব ছড়াচ্ছে, তাদের পুলিশ শনাক্ত করছে। এদের বিরুদ্ধে ডিজিটাল সিকিউরিটি আইনে ব্যবস্থা

নেওয়া হবে। সংবাদ সম্মেলনে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর) একেএম এমরান ভূঁঞা, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (উত্তর) মশিউদ্দৌলা রেজা, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (দক্ষিণ) আফরুজুল হক টুটুল, চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক চৌধুরী ফরিদ উপস্থিত ছিলেন।

যশোর :যশোরে ছেলেধরা গুজব প্রতিরোধে শোভাযাত্রা ও লিফলেট বিতরণ করেছে পুলিশ প্রশাসন। গতকাল সকালে এ শোভাযাত্রার উদ্বোধন করেন জেলা প্রশাসক শফিউল আরিফ। এ সময় বক্তব্য দেন পুলিশ সুপার মঈনুল হক। শহরের দড়াটানা ভৈরব চত্বর থেকে শোভাযাত্রাটি বের হয়ে শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ :দুপুরে জেলা পুলিশ সুপারের সম্মেলন কক্ষে এক সংবাদ সম্মেলনে পুলিশ সুপার টিএম মোজাহিদুল ইসলাম গুজব প্রতিরোধে পুলিশের পাশাপাশি সাংবাদিকদেরও মাঠে কাজ করার আহ্বান জানান। গুজব রটনাকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেন পুলিশ সুপার।

জয়পুরহাট :জেলাজুড়ে পুলিশের পক্ষ থেকে কয়েকদিন ধরে একযোগে মাইকিং ও লিফলেট বিতরণ করে জেলাবাসীকে ছেলেধরা গুজবে কান না দেওয়ার আহ্বান জানানো হচ্ছে। পুলিশ সুপার সালাম কবির পিপিএম সমকালকে জানান, ছেলেধরা বিষয়টি একেবারে পুরোটাই গুজব। একটি মহল অসৎ উদ্দেশ্যে এমন গুজব ছড়াচ্ছেন।

মেহেরপুর :'গুজবে বিভ্রান্ত হবেন না অপরকে বিভ্রান্ত করবেন না' এমন লেখা সংবলিত লিফলেট বিতরণ করেছে মেহেরপুর জেলা পুলিশ। সকালে শহরের প্রতিটি স্কুল, কলেজ, বাসস্ট্যান্ড এলাকায় ও শহরের ভেতরে এমন লিফলেট বিতরণ করা হয়। এ ছাড়া জেলার বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থান ও জনসমাগমস্থলে মাইকিং করে সচেতন করা হচ্ছে। এ সময় উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার হাসিব হোসেন, সদর থানার ওসি শাহ দ্বারা খানসহ পুলিশের বিভিন্ন কর্মকর্তারা।

পটুয়াখালী :পটুয়াখালীতে গণসচেতনতা কর্মসূচির নেতৃত্ব দিয়েছেন স্থানীয় সাংসদ অ্যাডভোকেট মো. শাজাহান মিয়া। জেলা পুলিশের উদ্যোগে পুলিশ লাইন্সে এ কর্মসূচিতে আরও উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক মো. মতিউল ইসলাম চৌধুরী, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মইনুল হাসান, পৌর মেয়র মহিউদ্দিন আহমেদ, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট মো. গোলাম সরোয়ার প্রমুখ। পুলিশের সপ্তাহব্যাপী এ গণসচেতনতা কর্মসূচিতে স্কুল, কলেজ, হাট-বাজার, লঞ্চ, বাস টার্মিনাল এবং এলাকাভিত্তিক সচেতনতামূলক সভা, লিফলেট বিতরণ ও মাইকিং করা হচ্ছে বলে জানান পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মইনুল হাসান।

রাজবাড়ী :গুজব প্রতিরোধে রাজবাড়ী জেলা পুলিশের উদ্যোগে গতকাল দুপুরে রাজবাড়ী? সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যাল?য় হল রুমে জনসচেতনতামূ?লক সভা অনু?ষ্ঠিত হয়েছে। এতে প্রধান অতিথির বক্তৃতা করেন পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান। বক্তব্য দেন অ?তি?রিক্ত পু?লিশ সুপার (সদর) মো. ফজলুল ক?রিম, সদর থানার ওসি স্বপন কুমার মজুমদার, বিদ্যালয়টির প্রধান শিক্ষক রেজাউল হাসান খান, শিক্ষক হা?বিবুর রহমান প্রমুখ।

পিরোজপুর :জেলা পুলিশের উদ্যোগে গতকাল দুপুরে স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীদের নিয়ে র‌্যালি ও শিক্ষার্থী সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। এ সময় গুজববিরোধী লিফলেট বিতরণ করা হয়। র‌্যালিতে নেতৃত্ব দেন পুলিশ সুপার হায়াতুল ইসলাম খান। পরে সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয় মিলনায়তনে প্রধান শিক্ষক মো. জসিম উদ্দিন মাঝির সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য দেন পুলিশ সুপার মো. হায়াতুল ইসলাম খান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোল্লা আজাদ হোসেন ও মুক্তিযোদ্ধা গৌতম চৌধুরী।

শরীয়তপুর :গতকাল জেলা পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে পুলিশ সুপার আব্দুল মোমেন বলেন, গুজব ছড়িয়ে দেশে অস্থিতিশীলতা তৈরি করা রাষ্ট্রবিরোধী কাজের শামিল এবং গণপিটুনি দিয়ে মৃত্যু ঘটানো গুরুতর ফৌজদারি অপরাধ। এ সময় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আল মামুন শিকদার, তানভীর হায়দার শাওন ও পালং মডেল থানার ওসি আসলাম উদ্দিন উপস্থিত ছিলেন।

এ ছাড়া মাদারীপুরের শিবচর, নোয়াখালীর সেনবাগ, বরগুনার বেতাগীতে, গাজীপুরের কালীগঞ্জ ও নরসিংদীর পলাশে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পুলিশের সচেতনতামূলক সভায় শিক্ষার্থীদের গুজবে আতঙ্কিত না হতে ও বিদ্যালয়ে আসা বন্ধ না করার আহ্বান জানানো হয়। এ ছাড়া পাবনার চাটমোহরে মূলগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের উদ্যোগে গণসচেতনতামূলক সভা, পিরোজপুরের ভাণ্ডারিয়ায় পুলিশের উদ্যোগে র‌্যালি ও লিফলেট বিতরণ, বগুড়ার আদমদীঘিতে মাইকিং করে জনগণকে গুজবে বিভ্রান্ত না হওয়ার আহ্বান জানানো হয়।