তাড়াশে ইউপি সদস্যের পা ভাঙলেন আ'লীগ নেতা

প্রকাশ: ২৬ জুলাই ২০১৯      

তাড়াশ (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি

সিরাজগঞ্জের তাড়াশে জমি নিয়ে বিরোধের জেরে সগুনা ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মনিরুজ্জামান মনির দুই পা ভেঙে দিয়েছেন ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি। গতকাল বৃহস্পতিবার ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল গনি মাস্টারের নেতৃত্বে তার লোকজন নাদ্যেসৈয়দপুর বাজার থেকে ইউপি সদস্য মনিকে প্রকাশ্যে তুলে নিয়ে যায়। পরে তার বাড়িতে নিয়ে পিটিয়ে মনির দুই পা ভেঙে দেওয়া হয়। আহত ইউপি সদস্য সগুনা ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও কাটাবাড়ি গ্রামের নুর মাহমুদের ছেলে।

সগুনা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান টিএম আব্দুল্লা হেল বাকী ও স্থানীয়রা জানান, সাত বিঘা খাস জমি নিয়ে আব্দুল গনির সঙ্গে ইউপি সদস্য মনিরুজ্জামান মনির দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল। এ ঘটনায় সম্প্রতি আব্দুল গনি আদালতে মামলা করেন। বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৬টার দিকে ওই মামলায় হাজিরা দিতে সিরাজগঞ্জ আদালতে যাওয়ার জন্য বের হন মনি। নাদ্যেসৈয়দপুর বাজারে পৌঁছালে আব্দুল গনির নেতৃত্বে ১০-১২ জন দেশি অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে মনিকে তুলে নিয়ে যায়। পর আব্দুল গনির সবুজপাড়া গ্রামের বাড়িতে নিয়ে রড, হাতুড়ি ও লাঠিসোটা দিয়ে পিটিয়ে মনির দুই পা ভেঙে দেয় এবং মারাত্মক জখম করে তারা।

খবর পেয়ে সকাল ৯টার দিকে স্থানীয়দের সহযোগিতায় তাড়াশ থানার ওসি মোস্তাফিজুর রহমানের নেতৃত্বে একদল পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে মুমূর্ষু অবস্থায় মনিকে উদ্ধার করে সিরাজগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে পাঠায়। অবস্থার অবনতি হওয়ায় মনিকে ঢাকায় পঙ্গু হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে বলে তার আত্মীয় আফসার আলী জানিয়েছেন। এ ঘটনায় আব্দুল গনি মাস্টারের বক্তব্য নেওয়ার জন্য যোগাযোগ করা হলে তার মুঠোফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়।

তাড়াশ থানার ওসি মোস্তাফিজুর রহমান জানান, ইউপি সদস্য মনিকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। জমি নিয়ে বিরোধের কারণে এ ঘটনা ঘটেছে। পুলিশ অভিযুক্তদের গ্রেফতারে চেষ্টা চালাচ্ছে।