লালবাগে মসজিদে খাদেমের বস্তাবন্দি লাশ

প্রকাশ: ০৫ জুলাই ২০১৯

সমকাল প্রতিবেদক

পুরান ঢাকার লালবাগের আজিমপুর কবরস্থানসংলগ্ন জামে মসজিদের খাদেম আবু হানিফের (৩০) বস্তাবন্দি লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। বুধবার রাতে খাদেমের কক্ষের পাশের গুদামঘর থেকে লাশ উদ্ধার করা হয়। পুলিশ বলছে, তাকে ছুরিকাঘাতে হত্যা করা হয়েছে। পরে লাশ বস্তাবন্দি করে খুনি পালিয়েছে। এ ঘটনায় মসজিদের ইমাম, অপর তিন খাদেম ও পরিচ্ছন্নতাকর্মীসহ পাঁচজনকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করছে পুলিশ। নিহত হানিফের গ্রামের বাড়ি গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায়।

লালবাগ থানার ওসি কে এম আশরাফ উদ্দিন বলেন, হত্যাকাণ্ডে কারা জড়িত থাকতে পারে, তা প্রাথমিকভাবে নিশ্চিত হওয়া গেছে। আসামি গ্রেফতারের পর হত্যার কারণ সম্পর্কে জানা যাবে।

তিনি জানান, ওই মসজিদে চারজন খাদেম ও একজন পরিচ্ছন্নতাকর্মী থাকেন। হানিফের লাশ উদ্ধারের পর থেকে একজন খাদেম পলাতক। বাকি তিন খাদেম ও ইমামসহ পাঁচজনকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। এ ঘটনায় নিহতের শ্বশুর জাকির শেখ বাদী হয়ে লালবাগ থানায়

মামলা করেছেন।

জানা গেছে, পলাতক খাদেমের নাম সাইফুল। তাকে ধরতে অভিযান শুরু করেছে পুলিশ। হানিফ হত্যাকাণ্ডে সাইফুল জড়িত থাকতে পারে বলে পুলিশের ধারণা। হানিফের স্বজনরা জানান, দুই মাস আগে তারাবির নামাজ পড়ানোর জন্য আবু হানিফকে নিয়োগ দেওয়া হয়েছিল। তখন থেকেই খাদেম সাইফুলের সঙ্গে হানিফের বনিবনা হচ্ছিল না। এর জেরে হত্যাকাণ্ড ঘটতে পারে।

মঙ্গলবার দুপুরের পর থেকে হানিফকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছিল না। বুধবার মধ্যরাতে খাদেমের কক্ষের পাশের ঘরের গুদামঘর থেকে পচা গন্ধ আসছিল। পরে খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে হানিফের লাশ উদ্ধার করে। গতকাল ময়নাতদন্ত শেষে লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।