ঈদুল আজহা উদযাপিত

প্রকাশ: ১৫ আগস্ট ২০১৯      

সমকাল প্রতিবেদক

যথাযোগ্য ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্য ও ত্যাগের মহিমায় সারাদেশে পবিত্র ঈদুল আজহা উদযাপিত হয়েছে। গত সোমবার ঈদের নামাজ ও পশু কোরবানির মধ্য দিয়ে মুসলমানরা এই ধর্মীয় উৎসব উদযাপন করেন। নামাজের পরে ধনী-গরিব নির্বিশেষে সবাই কোলাকুলি ও শুভেচ্ছা বিনিময় করেন।

তবে রাজধানী ঢাকাসহ সারাদেশে ডেঙ্গু আতঙ্কের কারণে এবার ঈদের আয়োজনে সবাই ছিলেন অনেকটা সতর্ক। পাশাপাশি ঈদের ছুটির তিন দিনে থেমে থেমে বৃষ্টিপাত হয়। সাগরে লঘুচাপের সৃষ্টি হওয়ায় নদীবন্দরের ৩ নম্বর সতর্কসংকেত গতকাল বুধবার ২ নম্বর সংকেতে নামিয়ে আনা হয়। লঘুচাপের প্রভাবে দেশের বেশির ভাগ এলাকায় গতকালও ভারি বর্ষণ হয়। ফলে ছুটি শেষে রাজধানীফেরত মানুষ কিছুটা দুর্ভোগের শিকার হন।

ঈদের দিন সোমবার দেশের ধর্মপ্রাণ কোটি কোটি মানুষ ঈদগাহ, মসজিদ ও খোলা মাঠে ঈদের নামাজ আদায় করেন। রাজধানী

ঢাকায় হাইকোর্টসংলগ্ন জাতীয় ঈদগাহ ময়দানে প্রধান ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হয়। সকাল ৮টায় অনুষ্ঠিত এই জামাতে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ, প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন, ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকন, মন্ত্রিপরিষদ সদস্য, সুপ্রিম কোর্ট ও হাইকোর্ট বিভাগের বিচারপতি, সংসদ সদস্য, সিনিয়র রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ, সরকারের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা এবং বিভিন্ন মুসলিম দেশের কূটনীতিকসহ সর্বস্তরের হাজারো মানুষ নামাজ আদায় করেন। নামাজ শেষে বাংলাদেশসহ গোটা বিশ্বের মুসলিম উম্মাহর শান্তি ও সমৃদ্ধি কামনায় বিশেষ মোনাজাত করা হয়। পরে রাষ্ট্রপতি সেখানে উপস্থিত অনেকের সঙ্গে ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় করেন।

রাজধানীতে দ্বিতীয় বৃহত্তম জামাত অনুষ্ঠিত হয় বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদে। এখানে এবারও পাঁচটি ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হয়। প্রথম জামাত হয় সকাল ৭টায়। এর পরপর আরও চারটি জামাত যথাক্রমে সকাল ৮টা, ৯টা, ১০টা ও পৌনে ১১টায় অনুষ্ঠিত হয়। সংসদ ভবনের দক্ষিণ প্লাজায় সকাল সাড়ে ৭টায় ঈদুল আজহার জামাত অনুষ্ঠিত হয়।