রাজনৈতিক ও আর্থিক সুবিধা নিতে এখন বঙ্গবন্ধুর নাম ও ছবি ব্যবহার হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষনেতা ও গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেন। তিনি বলেন, যারা বঙ্গবন্ধুর নাম ব্যবহার করে উল্টোপাল্টা কাজ করছেন, তারা মহা অপরাধ করছেন। বঙ্গবন্ধু কখনও চাইতেন না এ দেশে স্বৈরশাসন কায়েম হোক, নামকাওয়াস্তে গণতন্ত্র চালু হোক।

জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে শনিবার জাতীয় প্রেস ক্লাবে গণফোরামের আলোচনা সভায় তিনি একথা বলেন। সভায় বক্তব্য দেন গণফোরামের সাধারণ সম্পাদক ড. রেজা কিবরিয়া, নির্বাহী সভাপতি অধ্যাপক ড. আবু সাইয়িদ, উপদেষ্টা পরিষদ সদস্য মোকাব্বির খান এমপি, অ্যাডভোকেট মহসিন রশীদ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোশতাক আহম্মেদ প্রমুখ।

ড. কামাল হোসেন আরও বলেন, এ দেশের মানুষ সব সময় বঙ্গবন্ধুকে মনে রাখবে। কারণ তিনি কখনও জনগণের অধিকার নিয়ে ছিনিমিনি খেলতেন না। আর জনগণ যে সব ক্ষমতার মালিক তা তিনি শিখিয়ে গেছেন এবং এ দেশের মালিকানা সংবিধানের মাধ্যমে জনগণের হাতে দিয়ে গেছেন। তাই বঙ্গবন্ধু অমর হয়ে থাকবেন।

একাদশ জাতীয় নির্বাচনের প্রসঙ্গ টেনে গণফোরাম সভাপতি বলেন, নির্বাচন পদ্ধতিকে ষোলআনা উল্টো করে দেওয়া হয়েছে। মানুষ যাকে ভোট দিতে চায় না, তারা সামনে এসে বলে- 'আমরা নির্বাচিত!'

মন্তব্য করুন