জাপার মনোনয়ন বোর্ড

বাদ পড়লেন রওশন ও তার অনুসারীরা

প্রকাশ: ২৫ আগস্ট ২০১৯

সমকাল প্রতিবেদক

হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের মৃত্যুতে শূন্য হওয়া রংপুর-৩ আসনের উপনির্বাচনে দলীয় প্রার্থী মনোনয়নে আট সদস্যের পার্লামেন্টারি বোর্ড গঠন করেছে জাতীয় পার্টি (জাপা)। বোর্ডে জায়গা পাননি জাপার প্রয়াত চেয়ারম্যান এরশাদের স্ত্রী এবং দলের সিনিয়র কো-চেয়ারম্যান রওশন এরশাদ। তার অনুসারীদেরও রাখা হয়নি।

গতকাল দলের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, জাপা চেয়ারম্যান জিএম কাদের বোর্ডের আহ্বায়ক হয়েছেন। সদস্য সচিব করা হয়েছে দলের মহাসচিব মসিউর রহমান রাঙ্গাঁকে। বোর্ডের সদস্যরা হলেন- প্রেসিডিয়াম সদস্য কাজী ফিরোজ রশীদ এমপি, গোলাম কিবরিয়া টিপু এমপি, শেখ সিরাজুল ইসলাম, মাহমুদুল ইসলাম চৌধুরী, ব্যারিস্টার শামীম হায়দার পাটোয়ারী এমপি এবং লেফটেন্যান্ট জেনারেল (অব.) মাসুদ উদ্দিন চৌধুরী এমপি। আজ রোববার জাপা চেয়ারম্যানের বনানী কার্যালয় থেকে রংপুর-৩ আসনের দলীয় মনোনয়ন ফরম বিতরণ শুরু হবে।

একাদশ সংসদ নির্বাচনে প্রার্থী বাছাইয়ে পার্লামেন্টারি বোর্ডে ছিলেন রওশন এরশাদ, এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদার, ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ, জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলুসহ জ্যেষ্ঠ নেতারা। এবার তারা নেই।

এরশাদের মৃত্যুর চার দিন পর গত ১৮ জুলাই জিএম কাদের জাপার  চেয়ারম্যান হন। এরশাদ জীবদ্দশাতেই তাকে দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান করেছিলেন। দলীয় ফোরামের সিদ্ধান্ত ছাড়াই জিএম কাদেরকে চেয়ারম্যান ঘোষণা করায় তাকে মেনে নিতে অস্বীকৃতি জানিয়ে গত মাসে বিবৃতি দেন বিরোধীদলীয় উপনেতা রওশন এরশাদ।

রংপুর-৩ আসনে জাপার প্রার্থী হতে চান রওশনপুত্র রাহাগীর মাহির সাদ এরশাদ। রওশন এরশাদও তাকে প্রার্থী করতে চান। জাপা সূত্রের খবর, সাদকে মনোনয়ন দিতে নারাজ চাচা জিএম কাদের। তাই পার্লামেন্টারি বোর্ডে রওশন এরশাদ ও তার অনুসারীদের রাখা হয়নি। তবে এ বিষয়ে জিএম কাদের মন্তব্য করেননি।

এরশাদের মৃত্যুতে শূন্য হওয়া বিরোধীদলীয় নেতার পদে কে বসবেন তা নিয়েও বিরোধ রয়েছে দেবর-ভাবির। রওশন এরশাদকে বিরোধীদলীয় নেতা করা হবে- এরশাদের মৃত্যুর পর জাপায় এমন খবর থাকলেও, এখন শোনা যাচ্ছে এ পদে জিএম কাদেরকে চান তার অনুসারীরা।