ফরিদপুরে সেতুর রেলিং ভেঙে বাস খাদে, নিহত ৮

বিভিন্ন স্থানে সড়কে আরও ১১ প্রাণহানি

প্রকাশ: ২৫ আগস্ট ২০১৯

সমকাল ডেস্ক

ফরিদপুরে সেতুর রেলিং ভেঙে যাত্রীবাহী বাস নদীতে পড়ে আটজনের প্রাণহানি ঘটেছে। এ নিয়ে দেশের বিভিন্ন এলাকায় সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণ হারিয়েছেন মোট ১৯ জন। তাদের মধ্যে ফরিদপুরের নগরকান্দায় আরেক দুর্ঘটনায় মা-ছেলেসহ তিনজন, মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় একজন, নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে নছিমনের ধাক্কায় এক রিকশাচালক, সিদ্ধিরগঞ্জে দুই বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে এক চালক, বগুড়ায় যাত্রীবাহী বাস উল্টে সেনাসদস্য, হবিগঞ্জে ট্রাকচাপায় প্রাণ কোম্পানির শ্রমিক, কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচরে এক আয়া, ঠাকুরগাঁওয়ে বাসের হেলপার ও কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ীতে মোটরসাইকেলের ধাক্কায় এক গৃহবধূ প্রাণ হারিয়েছেন।

সমকালের ব্যুরো, অফিস, প্রতিনিধি ও সংবাদদাতাদের পাঠানো খবর :

ফরিদপুর ও নগরকান্দা :ঢাকা-ফরিদপুর মহাসড়কের ফরিদপুর সদরে সেতুর রেলিং ভেঙে কমফোর্ট লাইনের একটি বাস খাদে পড়ে যায়। এতে বাসের আট যাত্রী নিহত হন। শনিবার দুপুর আড়াইটায় সদর উপজেলার মাচ্চর ইউনিয়নের ধুলদি এলাকায় দুর্ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও ২০ যাত্রী।

ফরিদপুর কোতোয়ালি থানার ওসি এফএম নাছিম জানান, ঢাকা থেকে গোপালগঞ্জের পাটকাটিগামী বাসটি সেতুর ওপর একটি মোটরসাইকেলকে সাইড দিতে গিয়ে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রেলিংয়ে ধাক্কা খায়। এ সময় বাসটি নিচে পড়ে যায়। দুর্ঘটনার খবর পেয়ে  ফরিদপুর ফায়ার সার্ভিসের দুটি ইউনিট ও হাইওয়ে থানা পুলিশ, কোতোয়ালি থানা পুলিশসহ এলাকাবাসী উদ্ধার কাজে অংশ নেন।

ফরিদপুর ফায়ার সার্ভিসের সহকারী উপপরিচালক শওকত আলী জোয়ার্দার জানান, ঘটনাস্থলে ছয়  যাত্রী নিহত হন। আহতদের ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে সেখানে আরও দুই ব্যক্তি মারা যান।

ফরিদপুর অঞ্চলের হাইওয়ে পুলিশ সুপার মোস্তাফিজুর রহমান জানান, সন্ধ্যা পর্যন্ত নিহত দু'জনের নাম-পরিচয় জানা গেছে। তারা হচ্ছেন হাবিবুর রহমান ও ফারুক হোসেন। দু'জনের বাড়ি গোপালগঞ্জে। নিহতদের পাঁচজন পুরুষ ও তিনজন নারী।

ফরিদপুর সদর আসনের এমপি ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেন আহতদের দ্রুত সর্বোচ্চ চিকিৎসা নিশ্চিত করতে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দিয়েছেন। এমপির এপিএস ফোয়াদ জানান, আহতদের রক্তের জন্য ছাত্রলীগ কর্মীদের প্রস্তুত রাখা হয়েছে।

দুর্ঘটনার বিষয়ে ফরিদপুরের জেলা প্রশাসক অতুল সরকার বলেন, আহতদের চিকিৎসার ব্যবস্থা স্থানীয় প্রশাসন ও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ বহন করবে।

মোটরসাইকেল আরোহী নিহত :ফরিদপুরে বাসচাপায় এরশাদ মোল্লা (২৮) নামে এক মোটরসাইকেল আরোহী

নিহত হয়েছেন। শনিবার সন্ধ্যায় ঢাকা-খুলনা মহাসড়কে ফরিদপুর সদরের কোমরপুর এলাকায় মুসলিম মিশনের সামনে এ দুর্ঘটনা ঘটে। এরশাদ মোল্লা ফরিদপুর শহরের রঘুনন্দনপুর মহল্লার ওয়াজেদ মোল্লার ছেলে।

ফরিদপুর কোতোয়ালি থানার ওসি এএফএম নাসিম বলেন, সোহাগ পরিবহনের একটি বাস তাকে চাপা দেয়। বাসটি চালকসহ গোয়ালন্দ এলাকায় আটক করেছে র‌্যাব।

মা-ছেলে নিহত : নগরকান্দা উপজেলার তালমার মোড়ে বাসের চাপায় অটোরিকশা যাত্রী মা-ছেলেসহ তিনজন নিহত হয়েছেন। নিহতরা হলেন রেশমা বেগম (৩০) ও তার ছেলে রনি (১২) এবং পথচারী আবুল শিকদার। এ দুর্ঘটনায় আরও পাঁচজন আহত হয়েছেন। আহতদের ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

নগরকান্দা ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার আতিকুর রহমান জানান, মুকসুদপুর থেকে আসা আর কে পরিবহন নামের বাসটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে অটোরিকশাসহ অপেক্ষমাণ যাত্রীদের চাপা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই বারখাদিয়া গ্রামের সিদ্দিকুর রহমানের স্ত্রী রেশমা বেগম ও তার ছেলে রনি নিহত হন। বাসটি আটক করা হলেও চালক পালিয়ে গেছে।

আড়াইহাজার ও সিদ্ধিরগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ) :আড়াইহাজারে নছিমনের চাপায় আলী আজগর (৩৫) নামে এক রিকশাচালক নিহত হয়েছেন। শনিবার দুপুরে ভুলতা-বিশনন্দী আঞ্চলিক মহাসড়কের কল্যান্দী এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। আজগর সালমদী নয়াপাড়া এলাকার ওসমান মিয়ার ছেলে। পুলিশ জানায়, নছিমনটি আজগরের রিকশাকে পেছন থেকে ধাক্কা দিলে তিনি রিকশা থেকে ছিটকে পড়ে যান। এ সময় নছিমনটি তার ওপর দিয়ে চলে গেলে ঘটনাস্থলেই আজগর নিহত হন। আড়াইহাজার থানার ওসি নজরুল ইসলাম বলেন, নছিমন ও চালককে আটকের চেষ্টা চলছে।

সিদ্ধিরগঞ্জে যাত্রীবাহী দুরন্ত বাসের সঙ্গে নিট কনসার্ন নামের পোশাক কারখানার স্টাফ বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে মেহেদী নামে এক চালক নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন ৩০ জন। গতকাল শনিবার সকালে নারায়ণগঞ্জ-আদমজী-শিমরাইল সড়কের গোদনাইলের বার্মাশীল এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

সিদ্ধিরগঞ্জ থানার এসআই জসিম উদ্দিন বলেন, আহতদের মধ্যে দুরন্ত বাসের চালক মেহেদীকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে তার মৃত্যু হয়। এ ছাড়া গুরুতর আহত সাতজনকে ঢামেক হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

বগুড়া :বগুড়া-রংপুর মহাসড়কের শিবগঞ্জ উপজেলার রহবল এলাকায় যাত্রীবাহী বাস উল্টে সেনাবাহিনীর সার্জেন্ট আবদুল আজিজ নিহত হন। তিনি তার কর্মস্থল সৈয়দপুর ক্যান্টনমেন্টে যাচ্ছিলেন। এ ঘটনায় কমপক্ষে আরও পাঁচ যাত্রী আহত হয়েছেন। গোবিন্দগঞ্জ হাইওয়ে থানার ওসি আব্দুল কাদের জিলানী জানান, চট্টগ্রাম থেকে ছেড়ে আসা সৌখিন ট্রাভেলস নামের বাসটি রহবল এলাকায় নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খাদে পড়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই ওই সেনাসদস্য নিহত হন। খবর পেয়ে গোবিন্দগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের একটি টিম ঘটনাস্থলে গিয়ে উদ্ধার কার্যক্রম চালায়।

হবিগঞ্জ :হবিগঞ্জের শায়েস্তাগঞ্জে ট্রাকচাপায় আজাদ মিয়া (২৫) নামের এক শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে। শনিবার দুপুরে উপজেলার অলিপুর এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। আজাদ ব্রাহ্মহ্মণবাড়িয়ার বিজয়নগর থানার বারগিরা গ্রামের মোহন মিয়ার ছেলে। তিনি হবিগঞ্জ ইন্ডাস্ট্রিয়াল পার্ক প্রাণ কোম্পানিতে শ্রমিক হিসেবে কর্মরত ছিলেন। শায়েস্তাগঞ্জ হাইওয়ে থানার ওসি লিয়াকত হোসেন জানান, আজাদ কর্মস্থলে যাওয়ার পথে ট্রাকচাপায় ঘটনাস্থলেই নিহত হন। পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য হবিগঞ্জ হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে।

কুলিয়ারচর (কিশোরগঞ্জ) :কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচরে সড়ক দূর্ঘটনায় আহত মেহেরা খাতুন গতকাল শনিবার ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন। তিনি কুলিয়ারচরের আগরপুর বাসস্ট্যান্ডের একটি হোটেলে আয়ার কাজ করতেন। শুক্রবার বিকেলে আগরপুর বাসস্ট্যান্ডের হবি স্টুডিওর সামনে তিনি রাস্তা পার হওয়ার সময় অটোরিকশার নিচে চাপা পড়েন। তিনি আগরপুর হাড়িয়াকান্দা গ্রামের মৃত সেকান্দর মিয়ার স্ত্রী।

ফুলবাড়ী (কুড়িগ্রাম) :কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী উপজেলায় মোটরসাইকেলের ধাক্কায় ফাতেমা বেগম (৪৮) নামের এক গৃহবধূর মৃত্যু হয়েছে। ফাতেমা উপজেলা সদর ইউনিয়নের পানিমাছ কুটিগ্রামের মুসা মিয়ার স্ত্রী। গতকাল সকালে ফুলবাড়ী-নাগেশ্বরী সড়কের পানিমাছকুটি এলাকায় রাস্তা পার হওয়ার সময় একটি মোটরসাইকেল সজোরে ধাক্কা দিলে ছিটকে পড়েন তিনি। ফুলবাড়ী থানার ওসি খন্দকার ফুয়াদ রুহানী জানান, তাকে দ্রুত রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি।

ঠাকুরগাঁও :ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা তাজ পরিবহন নামে একটি নৈশকোচ নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে গাছের সঙ্গে ধাক্কা খেয়ে হেলপার ইউসুফ (৩৪) নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আরও ১২ জন আহত হন। ইউসুফের বাড়ি চাঁদপুর জেলায়। শনিবার ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার জগন্নাথপুর হিমাদ্রী কোল্ড স্টোরেজের সামনে এ দুর্ঘটনা ঘটে। ঠাকুরগাঁও ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন ইনচার্জ মফিদার রহমান বলেন, আহতদের উদ্ধার করে ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।