রাজশাহীতে ভগ্নিপতিকে হত্যা মামলায় শ্যালকের ফাঁসি

প্রকাশ: ২৬ আগস্ট ২০১৯      

রাজশাহী ব্যুরো

ভগ্নিপতিকে ছুরিকাঘাতে হত্যার অপরাধে রাজশাহীতে ফয়সাল কবীর রনি (৩৫) নামে এক ব্যক্তির ফাঁসির আদেশ দিয়েছেন আদালত। একইসঙ্গে তাকে ১০ হাজার টাকাও জরিমানা করা হয়েছে। গতকাল রোববার দুপুরে রাজশাহীর দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের বিচারক অনুপ কুমার এ রায় ঘোষণা করেন।

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত রনি রাজশাহী মহানগরীর কাজলা কেডি ক্লাব পশ্চিমপাড়া মহল্লার হাবিবুর রহমানের ছেলে। মামলায় হাবিবুর রহমানও (৫০) আসামি ছিলেন। আদালত তাকে বেকসুর খালাস দিয়েছেন।

মামলার বিবরণে জানা যায়, হাবিবুরের জামাতা জাহিদুল হাসান বিপ্লবকে (৩৫) ২০১৭ সালের ৩ মার্চ ছুরিকাঘাতে হত্যা করা হয়। বিপ্লবের বাড়িও একই এলাকায়। তার বাবার নাম এরশাদ আলী। বিপ্লবকে হত্যার ঘটনায় নগরীর মতিহার থানায় তিনজনের বিরুদ্ধে মামলা করেন তার বড় ভাই আসাদ ওরফে বুলবুল। অভিযোগপত্র থেকে এক আসামিকে অব্যাহতি দেওয়া হয়।

মামলার বাদী জানান, ১২ বছর আগে বিপ্লব ভালোবেসে রনির ছোট বোন লিজা খাতুনকে বিয়ে করেছিলেন। এ বিয়ে মেনে নেননি রনি। এ নিয়ে রনি ও বিপ্লবের মধ্যে দ্বন্দ্ব চলে আসছিল। এরই মধ্যে বিপ্লব-লিজার ঘরে একটি কন্যাসন্তানের জন্ম হয়। তার নাম অঙ্কিতা। কিন্তু তাদের দ্বন্দ্বের জেরে বিয়ের আট বছর পর দু'জনের বিয়ে বিচ্ছেদ হয়ে যায়। ২০১৭ সালের ৩ মার্চ বাড়ির সামনে ইট রাখাকে কেন্দ্র করে কথাকাটাকাটির একপর্যায়ে বিপ্লবকে ছুরিকাঘাত করে রনি পালিয়ে যায়। ঘটনাস্থলেই বিপ্লব মারা যান।

আদালতে রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী এন্তাজুল হক বাবু জানান, আসামি রনি গ্রেফতার হওয়ার পর উচ্চ আদালত থেকে জামিনে ছিল। মামলার যুক্তিতর্ক উপস্থাপনের দিন থেকে সে পলাতক। তার অনুপস্থিতিতেই রায় ঘোষণা করা হয়েছে। আসামি হাবিবুর রহমান এ সময় উপস্থিত ছিলেন। অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় তিনি বেকসুর খালাস পেয়েছেন।