নুসরাত হত্যা

আজ আদালতে শোনানো হবে দুই আসামির মোবাইল আলাপের রেকর্ড

প্রকাশ: ২৬ আগস্ট ২০১৯      

নিজস্ব প্রতিবেদক, ফেনী

মাদ্রাসাছাত্রী নুসরাত জাহান রাফির হত্যা মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পিবিআই পরিদর্শক শাহ আলম আজ আদালতে দুই আসামির মোবাইল ফোনে আলাপের রেকর্ড শোনাবেন। গতকাল রোববার শাহ আলম তার সাক্ষ্যে আদালতকে জানান, তিনি আসামি শাহাদাত হোসেন শামীম হত্যা সম্পর্কে মোবাইলে কথোপথনের রেকর্ড এজলাসে শোনাবেন। রোববার ফেনীর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আদালতে তিনি সাক্ষ্য দেন। আজ সোমবার শাহ আলমের সাক্ষ্যের বাকি অংশগ্রহণের দিন ধার্য করে আদালত মুলতবি ঘোষণা করেন বিচারক।

সকালে বিচারক মামুনুর রশিদের আদালতে পুলিশ নুসরাত হত্যার ১৬ আসামিকে হাজির করে। গত বুধবার আদালতে নেওয়া পিবিআই পরিদর্শক শাহ আলমের সাক্ষ্যের বাকি অংশ গ্রহণ শুরু করেন আদালত। পরিদর্শক শাহ আলম আদালতে বলেন, ২৭ মার্চ নুসরাতকে যৌন হয়রানির ৬ মাস আগে অধ্যক্ষ সিরাজ-উদ-দৌলা আরেক মাদ্রাসাছাত্রী নাসরিন সুলতানা ফুর্তিকে যৌন হয়রানি করেছিল। আসামি নূর উদ্দিনের ১৬৪ ধারার জবানবন্দি উল্লেখ করে শাহ আলম আদালতে বলেছেন, আসামি শাহাদাত হোসেন শামীমকে আসামি কাউন্সিলর মকসুদ আলম নুসরাতকে প্রয়োজনে হত্যা করার খরচ বাবদ ১০ হাজার টাকা দেয়। সাক্ষ্য দেওয়ার সময় শাহ আলম আদালতকে বলেন, ৬ এপ্রিল নুসরাতের গায়ে আগুন দেওয়ার পর ১০টা ১৪ মিনিটের সময় আসামি শাহাদাত হোসেন শামীম অপর আসামি রুহুল আমিনের সঙ্গে হত্যার  বিষয়ে ২৬ সেকেন্ড কথা বলে। জব্দ করা মোবাইলের এই কথোপকথন প্রকাশ্য এজলাসে শোনাবেন বলে তদন্ত কর্মকর্তা আদালতকে জানান।

সাক্ষ্য গ্রহণকালে আসামি পক্ষের আইনজীবী আদালতকে বলেন, শাহ আলম চার্জশিট হুবহু পাঠ করছেন। আদালত এ ব্যাপারে কোনো মন্তব্য করেননি। আদালতে আসামি পক্ষের আইনজীবী সন্তানসম্ভবা আসামি কামরুন নাহার মনির জামিন পিটিশন দাখিল করেন। আদালত এ ব্যাপারে সোমবার শুনানি গ্রহণ করবেন বলে জানিয়েছেন।